প্রচ্ছদ এক্সক্লুসিভ

ইলেকশন না দিয়ে পাপন নিজেই সভাপতির পদটি দখল করেন

1813
পড়া যাবে: < 1 minute

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতির পদটি নাজমুল হাসান পাপন দখল করে বসে আছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিসিবির সাবেক পরিচালক স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন।মঙ্গলবার রাতে বেসরকারি একটি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ অভিযোগ করেন। একই সঙ্গে তিনি বিসিবি’র সভাপতির পদ থেকে পাপনের পদত্যাগও দাবি করেন।

স্থপতি মোবাশ্বের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৯০ দিনের মধ্যে বিসিবি’র একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন পরিচালনা করার জন্য নামজমুল হাসান পাপনকে দায়িত্ব দিয়েছিলেন। কিন্তু পাপন ইলেকশন না দিয়ে নিজেই পদটি দখল করে বসে আছেন। পদটি তার কাছে লোভনীয় মনে হয়েছে। এখানে তিনি আকর্ষণীয় কিছু দেখেছেন। যার দরুন বিসিবি সভাপতির পদটি ছাড়েন নি।

আরও পড়ুন:  ১১ দফার সাথে দুই দফা বাড়িয়ে ১৩ দফার চিঠি বিসিবিতে পাঠিয়েছেন সাকিবরা

তিনি বলেন, ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ ৬টি ক্লাবেরও কর্তৃত্ব তার হাতে। তিনি এজন্য ক্লাবগুলো নিয়ন্ত্রণ করেন যাতে করে নির্বাচনে সহজেই তিনি বিসিবি সভাপতি হতে পারেন। কয়েকটি ক্লাবকে দুইটা করে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন।

মোবাশ্বের বলেন, বিসিবির পদটি দখল করে পাপন পুরো কন্সটিটিউশন (সংবিধান) চেঞ্জ করছে। লোকমানদের মতো ক্রিমিনালদের বোর্ডে নিয়ে এসেছেন। যার সাথে ক্রিকেটের কোন সম্পর্ক নেই।

তিনি বলেন, ক্রিকেটারদের আন্দোলনে বিসিবি সভাপতি ষড়যন্ত্র দেখছেন। ষড়যন্ত্রতো এক ঘণ্ট বা একদিনে হয়নি। এটা ১৫ দিন কিংবা এক মাস আগ থেকে শুরু হয়েছে। সভাপতি হিসেবে তিনি এসব জানেন না কেন? এজন্য এই পদ থেকে তার সরে যাওয়া উচিত। তার পদত্যাগ করা উচিত। আর ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে বিসিবি সভাপতি পদে দায়িত্বে এসেছেন বলেই এখন সবকিছুতে ষড়যন্ত্র খুঁজছেন নাজমুল হাসান পাপন

আরও পড়ুন:  বৈঠকে দুই পক্ষের সমঝোতা,মাঠে ফিরছেন ক্রিকেটাররা

তিনি আরও বলেন, ক্রিকেটারদের ধর্মঘট নিয়ে এখন আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোও বিবৃতি দিচ্ছে। এটা বাংলাদেশের জন্য খুবই লজ্জার বিষয়। বিসিবির সাবেক এই পরিচালক বলেন, তাদের এ ১১ দফা দাবি প্রত্যেকেই মনে করেন ক্রিকেটের উন্নয়নের বিকল্প নেই।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 71K
    Shares