প্রচ্ছদ অপরাধ

দশম শ্রেণীর স্কুলছাত্রীকে আবাসিক হোটেলে নিয়ে দিনভর একাধিকবার ধর্ষণ

14
পড়া যাবে: < 1 minute

মাদারীপুরে পরিচয় গোপন রেখে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দশম শ্রেণীর স্কুলছাত্রীকে আবাসিক হোটেলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে দুই সন্তানের বাবা আব্দুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অপর দিকে অসুস্থ অবস্থায় ওই শিক্ষার্থীকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিনভর হোটেলে রেখে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর সন্ধ্যায় অসুস্থ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে গেলে অভিযুক্ত আব্দুর রহমানকে আটক করে পুলিশে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, আড়াই বছর আগে মাদারীপুর সদর উপজেলার ঝাউদি গ্রামের আব্দুর রহমান নিজেকে অবিবাহিত দাবি করে মোবাইল ফোনে দশম শ্রেণীর ওই ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে।এর ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার সকালে তিনি শহরের একটি আবাসিক হোটেলে ওই শিক্ষার্থীকে নিয়ে বিয়ের প্রলোভনে দিনভর একাধিকবার ধর্ষণ করে।

আরও পড়ুন:  শরবত খাইয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ

সন্ধ্যার দিকে ওই শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়লে ভুল তথ্য দিয়ে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে অভিযুক্ত। বিষয়টি সন্দেহ হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তাকে আটক করে। এ ঘটনায় দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার ও এলাকাবাসী।

প্রথমে ভুল তথ্য দিয়ে ভর্তি করা হলেও পরে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানান হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মনিরুজ্জামান পাভেল।

এ দিকে ধর্ষণের ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ার কথা জানান মাদারীপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে ধর্ষণের শিকার তরুণীর সাথে কথা বললে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া গেছে। মূলত পরিচয় গোপন রেখে আবাসিক হোটেলে নিয়ে এই ধর্ষণ করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। অভিযুক্ত আটক আছে।

আরও পড়ুন:  শ্বশুর-শাশুড়ির সহযোগিতায় গৃহবধূকে ধর্ষণ করলো স্থানীয় ইউপি মেম্বার

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।