প্রচ্ছদ এক্সক্লুসিভ

এবার পত্রিকা সম্পাদক দ্বারা ব্যাংক পরিচালককে ব্লা’কমেই’ল করার অডিও রেকর্ড প্রধানমন্ত্রীর হাতে

174
পড়া যাবে: < 1 minute

১৮তম ন্যাম সম্মেলনে যোগদান উপলক্ষে আজরবাইজানে চার দিনের সফর নিয়ে গত মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী একজন সম্পাদককে ইঙ্গিত করে বলেছিলেন, একজন সম্পাদক একজন ব্যাংকের এমডিকে ফোন করেছেন। ফোন করে তার কাছে টাকা দাবি করেছেন। সম্পাদক ওই এমডিকে জানিয়েছেন যেন তিনি তার চেয়ারম্যানকে জানান যদি তাকে টাকা না দেওয়া হয় তাহলে তার বিরুদ্ধে ফলোআপ করে সংবাদ প্রকাশ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী ওই সম্পাদকের নাম বলেননি। সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নোত্তরের এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী গণমাধ্যমের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন যখন ঢাকা শহরে ক্যা’সিনোর রমরমা বাণিজ্য ছিল তখন কোন গণমাধ্যম এই খবর জানায়নি। প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনের পর রাজনৈতিক এবং সামাজিক অঙ্গনে গুঞ্জন ওঠেছে কে এই সম্পাদক?

আরও পড়ুন:  অবশেষে রাজনীতিতে আসছেন প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল?

এনিয়ে নানা রকম গুঞ্জন এবং ফিসফাস আওয়াজও শোনা যাচ্ছে। অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে যে, একজন প্রভাবশালী সম্পাদক যিনি বিএনপিপন্থী সম্পাদক হিসাবে পরিচিত। ওয়ান ইলেভেনের সময় তিনি সক্রিয় ছিলেন। আওয়ামী বিরোধী সম্পাদক হিসাবে পরিচিত। ওই সম্পাদক সাবেক ফার্মার্স ব্যাংক (বর্তমানে নাম পরিবর্তন করে পদ্মা ব্যাংক) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালককে ফোন করেছিলেন।

ফোন করে তিনি ফার্মাস ব্যাংকের বিরুদ্ধে অনেক দু’র্নীতি এবং অনিয়মের তথ্য তাদের কাছে রয়েছে বলে জানান। ওই পত্রিকার সম্পাদক একটি টেলিভিশন চ্যানেলের একটি অনুষ্ঠানেরও উপস্থাপক। জানা গেছে যে তিনিই ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে একরকম ব্লা’কমেই’ল করেন। এই সম্পাদকের সঙ্গে পদ্মা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সঙ্গে কথোপকথনের অডিও রেকর্ড হয়েছে। সেই রেকর্ড প্রধানমন্ত্রীর হাতে এসেছে। সেই রেকর্ডে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে ঐ সম্পাদক পদ্মা ব্যাংকের বিভিন্ন দু’র্নীতি’র বিষয় নিয়ে ব্লা’কমেই’ল করার চেষ্টা করেছিলেন। তাকে যদি বিজ্ঞাপন অথবা টাকা না দেওয়া হয় তাহলে তিনি একাধিক রিপোর্ট প্রকাশ করবেন বলেও হুমকি দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন:  ভৈরবকে শতভাগ বিদ্যুতায়ন উপজেলা ঘোষণা

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, গোয়েন্দারা এই অডিও ক্লিপটি নিয়ে আরো অনুসন্ধান করছে। আজ বৃহস্পতিবার এই বিষয়টি নিয়ে পদ্মা ব্যংকের কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও কথা বলা হয়েছে। খুব শিগগির এই সম্পাদকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 177
    Shares