প্রচ্ছদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে

ভারত সফরের আগে সাকিবকে কায়দা করে থামিয়ে দেয়া হয়েছে

67
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

ভারত সফরের আ’গে সাকিবকে কায়দা করে থামিয়ে দেয়া হয়েছে বলে মনে করছে ক্রিকেট পাগল জনতা। এ’মন মন্তব্য করেছেন রাজধানীর সূত্রাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী ওয়াজেদ। মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) আইসিসি কর্তৃক সাকিব আল হাসানকে নি’ষিদ্ধের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কাজী ওয়াজেদ একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তিনি এ মন্তব্য করেন বলে একটি শীর্ষ স্থানীয় গণমাধ্যমে উল্লেখ করা হয়েছে। ওই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কাজী ওয়াজেদের স্ট্যটাসটি বাংলা ম্যাগাজিন পাঠকদের জন্য তুলে ধ’রা হলো-

‘বাইরে থেকে ছে’লেটিকে দেখে একটু অহংকারী মনে হতে পারে। তাঁর কিছু আচরনে অনেক সময়ই অনেকের মত ব্যথিতও হয়েছি। কিন্তু ক্রিকে’টের মাঠে সে সত্যিকার একজন চ্যাম্পিয়ন।

বিশ্বের ক্রিকেট খেলুড়ে সব দেশের সেরা একাদশে খেলার মত একমাত্র প্লেয়ার সাকিব এতে কারো দ্বিমত নেই। কি করেনি ছে’লেটা দেশের ক্রিকে’টের জন্য ? এইতো শেষ বিশ্বকাপেও ছে’লেটা দেশের ক্রিকেট’কে একাই টেনে নিয়ে গেলো অনেকদূর।

আরও পড়ুন:  চলে গেলেন লিটন , শান্ত ও সাকিব

ক্রিকে’টের টুকটাক খবর রাখে এমন কেউ বিশ্ব ক্রিকে’টে তার আবদান অস্বীকার করতে পারবে ? কত কঠিন কঠিন ম্যাচ বের করে এনেছে সাকিব। কি ইন্টারন্যাশনাল, কি ফ্রানচাইজি, কি ক্লাব ক্রিকেট ! এটাই সাকিব ! সন্মান করার মত অনেক প্লেয়ার জন্মেছে এদেশে। কিন্তু ক্রিকেটার সাকিব বাংলাদেশে একজনই। নি:স’ন্দেহে সবাই একবাক্যে সেটা স্বীকার করবে।

যে ঘটনায় তাকে এতদিন পর সাজা দেওয়া হলো ক্রিকে’টের আইনের ভাষায় হয়ত ঠিক আছে। তবে প্রত্যেক আইনের মধ্যে ব্যতিক্রম বলে একটা কথা আছে। স’রল বিশ্বাসে কৃত কাজ আর সেই কাজে যদি কোন ক্ষতি না হয় তবে সেটা বিবেচনার বিষয় হয়ে দাড়ায়। সাকিব বুকিদের অফারে কোন সাড়া না দিলেও বিষয়টাতে গুরুত্ব না দিয়ে এবং কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে হয়ত সে ভুল করেছে। আর যেহেতু সাকিব অফার একসেপ্ট করেনি এবং আগেপরে সাকিবের এ ধরনের কোন রেকর্ড নেই, কাজেই তাকে ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করে সা’জার বিষয়টা বিবেচনা করা যেতো। যদিও ক্রিকে’টের আইনে এ বিষয়ে কি আছে তা আমা’র জানা নেই।

আরও পড়ুন:  সাকিব কেন টুর্নামেন্ট সেরা নয় প্রশ্নের জবাব দিলো আইসিসি

তবে ইন্ডিয়া সফরের আগে ফর্মের তুঙ্গে থাকা সাকিবকে এত আগের একটা ঘটনায় এই মুহূর্তে সাজা দেওয়া তাকে একটু কায়দা করে থামিয়ে দেওয়া হিসেবেই দেখছে ক্রিকেট পাগল জনতা। আইনি কারনে তোমাকে যারা যেভাবেই দে’খুক আমা’র কাছে তুমি সত্যিই একজন চ্যাম্পিয়ন! তো’মাকে এভাবে থামিয়ে দেওয়ায় হৃদয়ে র’ক্তক্ষর’ণ হচ্ছে ভাই। ফিরে আসবে বীরের বেশে সে দিনের প্রত্যাশায়।’

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 160
    Shares