প্রচ্ছদ কৃষি, প্রাণী ও পরিবেশ বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ কোথায়, দেখুন সরাসরি

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ কোথায়, দেখুন সরাসরি

158
পড়া যাবে: < 1 minute

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভয়ংকর হচ্ছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় থেকে তীব্র সাইক্লোনে রূপ নেওয়া ‘বুলবুল’। ঘূর্ণিঝড়টির ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাস ঘন্টায় সর্বোচ্চ গতিবেগ ১২০ থেকে ১৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে।

ঘূর্ণিঝড় ধেয়ে আসায় খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, বরগুনা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও ভোলা জেলাকে ঝুঁকিপূর্ণের তালিকায় রাখা হয়েছে। এর মধ্যে বাগেরহাট শরনখোলা উপজেলার বগী, তাফালবাড়ি ও গাফতলা এলাকার মানুষ এর মধ্যেই আশ্রয় কেন্দ্রে আসতে শুরু করেছে।

প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘সাত জেলার লোক সরিয়ে নেয়ার জন্য আশ্রয় কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত রয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে ২ হাজার করে ১৪ হাজার শুকনো খাবারের প্যাকেট এবং নগদ ১০ লাখ করে মোট ৭০ লাখ টাকা, ২০০ টন করে এক হাজার ৪০০ টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।’

আরও পড়ুন:  ভোলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাত

নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে ৫ লাখ করে মোট ৬০ লাখ টাকা, ১০০ টন করে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী আরও বরাদ্দ দেয়া হবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

সন্ধ্যায় পয়রা সমুদ্রবন্দর এলাকা থেকে ৪৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এ কারণে পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এই ৭ নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় বরিশাল ও খুলনা বিভাগের উপকূলীয় অঞ্চল।

এ ছাড়া চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। ৬ নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় রয়েছে চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর ও চাঁদপুর অঞ্চল। তবে কক্সবাজার থাকবে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেতের আওতার মধ্যে।

এছাড়া ‘বুলবুল’ এর প্রভাবে রাত আটটা থেকে ঢাকা নদীবন্দর সদরঘাট টার্মিনাল সব ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তাছাড়া উপকূলীয় উপজেলা গুলোর সব সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মকারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:  ১০ নভেম্বর বাংলাদেশে আ'ঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট:

  • 23
    Shares