প্রচ্ছদ জাতীয় বুলবুলের আঘাতে ৫ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

বুলবুলের আঘাতে ৫ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

38
পড়া যাবে: < 1 minute
advertisement

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে পটুয়াখালীতে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। তিনি জানান, সরকারি হিসাবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে দুজন নি’হত ও আহত হয়েছেন ৩০ জন। এ ছাড়া ঝড়ে চার থেকে পাঁচ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। আজ রোববার দুপুরে সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী।

advertisement

এনামুর রহমান বলেন, ‘উপকূলীয় ১৪ জেলায় ত্রাণ সামগ্রী পাঠিয়ে আগাম ব্যবস্থা নিয়েছিল সরকার। এখন পর্যন্ত খুলনা ও পটুয়াখালীতে দুজনের মৃত্যু নিশ্চিত করেছে সরকার। বিস্তারিত ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ করে পরবর্তী পুনর্বাসনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, এখন পর্যন্ত বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে পটুয়াখালীতে। সেখানে ঘরবাড়ি আংশিক ভেঙেছে ৮৫টি। পানি প্রবাহিত হচ্ছে বেড়িবাঁধের ওপর দিয়ে।

আরও পড়ুন:  ১০ নভেম্বর বাংলাদেশে আ'ঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর তাণ্ডবে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী দুজনের মৃত্যুর কথা জানালেও পটুয়াখালী, খুলনা ও বরগুনায় নারীসহ চারজনের মৃ’ত্যুর খবর পাওয়া গেছে। নি’হতদের তিনজন ঘর ও গাছচাপায় এবং আরেকজন আশ্রয়কেন্দ্রে মা’রা গেছেন। আজ রোববার ভোর রাত ও সকালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের উত্তর রামপুরা গ্রামের হামেদ ফকির (৬০), খুলনার দাকোপ উপজেলার দক্ষিণ দাকোপ গ্রামের সুভাষ মণ্ডলের স্ত্রী প্রমিলা মণ্ডল (৫২), খুলনার সেনহাটির আলমগীর হোসেন (৩৫) ও বরগুনা সদর উপজেলার হালিমা খাতুন (৬৫)।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 27
    Shares
advertisement