প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি

আওয়ামী লীগরে গালি দিয়া কি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হয় কামাল ভাই

232
আওয়ামী লীগরে গালি দিয়া কি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হয় কামাল ভাই
ঈদের দিন বঙ্গভবনে ড. কামাল হোসেন - ছবি-ফোকাস বাংলা
পড়া যাবে: < 1 minute

ঈদের দিন নাটকীয় ভাবে বঙ্গভবনে গিয়েছিলেন গণফোরাম নেতা ড. কামাল হোসেন। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করতে যান তিনি। রাষ্ট্রপতি তাঁকে দেখে উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠেন। বলেন, ‘লিডার, আর কত রাগ কইর‌্যা থাকবেন। নিজের ঘরে ফির‌্যাত আসেন। আমি ব্যবস্থা করি। নেত্রীরে বুঝাই।’ রাষ্ট্রপতির উচ্ছ্বাসে একটু বিব্রত হন ড. কামাল হোসেন। বলেন, ‘আমি তো বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়েই আছি।’ রাষ্ট্রপতি এবার তাঁর হাতে জোরে ঝাঁকুনি দিয়ে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ঠিকানা হলো আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগরে গালি দিয়া কি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হয় কামাল ভাই। আপনি কি চান আমি দিমু।’ ড. কামাল বলেন, ‘আমি আপনার সঙ্গে কথা বলবো।’ রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘একশ বার কইয়েন, তয় আওয়ামী লীগে আহেন। কামাল ভাই এখন আমাদের সবার বয়স হইছে।’

আরও পড়ুন:  ছাত্রলীগকে ‘ভাইয়া লীগ ও সেলফিবাজি লীগ’-এ পরিণত করা শোভন-রাব্বানীকে এখন সবাই এড়িয়ে চলছেন

ড. কামাল হোসেন গত কয়েক মাস ধরে সরকারের কঠোর সমালোচক। তিনি জাতীয় ঐক্যের নামে একটি আওয়ামী লীগ বিরোধী রাজনৈতিক প্ল্যাটফর্ম তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছেন। দেশে গুণ্ডা তন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ করেছেন। সরকার বিরোধী তীব্র অবস্থানের পর তাঁর বঙ্গভবনে যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। অবশ্য ড. কামাল হোসেনের ঘনিষ্ঠরা বলছেন, ‘রাষ্ট্রপতি হলেন রাষ্ট্রের অভিভাবক। এ কারণেই বঙ্গভবনে গিয়েছিলেন গণফোরাম নেতা।’

উল্লেখ্য, ড. কামাল হোসেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ ছিলেন। বঙ্গবন্ধু তাঁকে তাঁর প্রথম মন্ত্রীসভায় আইনমন্ত্রী করেছিলেন। ৯১’ এর নির্বাচনের পর ড. কামাল হোসেন আওয়ামী লীগ ত্যাগ করেন। ঐ সময়ে তিনি গণফোরাম গঠন করেন।

আরও পড়ুন:  “উপজেলা নির্বাচনে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের বহিষ্কারের তালিকায় ফরিদপুরের ৭ জন”

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি