প্রচ্ছদ এক্সক্লুসিভ

এই ১১ জন সফল মন্ত্রীর কারণে সরকারের ওপর এখনো জনআস্থা রয়েছে

1243
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা আওয়ামী লীগ সরকার শুরু থেকেই নানা রকম অস্বস্তি এবং সমস্যার মুখে পড়েছে। বিশেষ করে দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি, নতুন সড়ক পরিবহণ সামাজিক অস্থিরতাসহ নানা সমস্যায় জনমনে নানা উদ্বেগ উৎকন্ঠা ক্রমশ বাড়ছে। এসবের মধ্যেও ১১জন মন্ত্রী স্ব মহিমায় উদ্ভাসিত। তাদের সাফল্যের কারণে এখনো সরকারের ওপর জন আস্থা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : সাফল্যের কেন্দ্রে যিনি রয়েছেন তিনি হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখনো জন আস্থার প্রতীক। সবাই তাকিয়ে থাকেন তার দিকে। তিনি যে কোন সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে সাহসী বৃদ্ধিদীপ্তভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। এখনো বাংলাদেশে সবচেয়ে সফল মন্ত্রী এবং রাজনীতিবিদ হলেন শেখ হাসিনা। তিনি টানা তৃতীয় ও চতুর্থবার প্রধানমন্ত্রী থেকে জনগনের দু:খ এবং সমস্যা সমাধানে সবচেয়ে সফল ব্যক্তি।

ওবায়দুল কাদের : একইসাথে পদ্মাসেতু-মেট্রোরেলসহ সড়ক অবকাঠামোয় বড় বড় কাজগুলো হচ্ছে, যেখানে কোন দূর্নীতির অভিযোগ উত্থাপিত হয়নি। মন্ত্রী হিসেবে তিনি এইসব কাজ তদারকির ক্ষেত্রে যথেষ্ট সিরিয়াস। এসব বিবেচনায় তিনি একজন সফল মন্ত্রী হিসেবেই চিহ্নিত হয়েছেন।

আসাদুজ্জামান খান কামাল : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সফল মন্ত্রীদের তালিকায় আরেকজন। বিশেষ করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিয়ন্ত্রণে রাখা, জঙ্গীবাদ দমন ও নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে তার দৃঢ় অবস্থান তাকে সফলদের তালিকায় অন্যতম করেছেন।

আরও পড়ুন:  ‘মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে। দাম বৃদ্ধি নিয়ে কোনো অসন্তোষ নেই মানুষের মধ্যে।’

ড. আব্দুর রাজ্জাক : মতিয়া চৌধুরীর পর কৃষি মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন ড. আব্দুর রাজ্জাক। এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ করে তিনি একই ধারায় নিয়ে গেছেন। কৃষকের ফসলের ন্যায্য মূল্য পাওয়ার ব্যাপারে তার দৃঢ় অবস্থান তাকে প্রশংসিত করেছে।

ড. হাছান মাহমুদ : হাছান মাহমুদ দায়িত্ব গ্রহণ করেই তথ্য মন্ত্রণালয়কে একটি শৃঙ্খলার মধ্যে এনেছেন। বিশেষ করে বিদেশি চ্যানেলগুলোর ব্যাপারে তার আইনানুগ কঠোরতা আরোপ এবং অনলাইন মিডিয়াগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আনাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে তিনি প্রশংসিত হয়েছেন।

এনামুর রহমান : বাংলাদেশ দুর্যোগ মোকাবেলায় একটি সফল রাষ্ট্র। তবে সবসময় দায়িত্ববান ব্যক্তি না থাকলে ক্ষয়ক্ষতি বাড়ে এবং অনেক সমস্যার তৈরি হয়। অতীতে এমন অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের রয়েছে। তবে এবারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর নিবিড় পর্যবেক্ষণে বাংলাদেশ দুর্যোগ মোকাবেলায় গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য দেখিয়েছে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের সময় দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল অবস্থানের কারণে দুর্যোগ মোকাবেলায় বাংলাদেশ আরেকবার সফল রাষ্ট্র হিসেবে আরেকবার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আনিসুল হক : আইন মন্ত্রী আনিসুল হক একজন সফল মন্ত্রী হিসেবে নিজেকে জানান দিয়েছেন। বিশেষ করে দ্রুত সময়ের মধ্যে নূসরাত হত্যার বিচার করা, আবরার হত্যা মামলা দ্রুত বিচারে আনাসহ বিভিন্ন স্পর্শকাতর এবং গুরুত্বপূর্ণ বিচার কাজগুলোকে দ্রুত নিষ্পত্তি করার ক্ষেত্রে তিনি সফল হয়েছেন।

আরও পড়ুন:  এরপর তোমার প্রার্থী হওয়ার একটি পোস্টার দেখলে আমি ব্যাবস্থা নেবো

ডা. দীপু মনি : ডাক্তার দিপু মনি শিক্ষা মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেই যে বড় কাজটি করেছেন সেটি হলো প্রশ্নপত্র  ফাঁসের কেলেঙ্কারি থেকে জাতিকে মুক্তি দিয়েছেন। এর পাশাপাশি শিক্ষা অঙ্গনের যে সমস্যাগুলো ছিল সেগুলো কথা কম বলে ঠান্ডা মাথায় উদ্যোগ নিয়েছেন।

মোঃ জাকির হোসেন : সাফল্যের সঙ্গে জেএসসি, জেডিসি এবং প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী সম্পন্ন করেছেন। প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন রকম দাবি দাওয়া প্রণয়নের ক্ষেত্রে তিনি যৌক্তিক ভূমিকা পালন করেছেন। যে সব জটিলতা ছিল এই মন্ত্রণালয় তা নিরসনের জন্য চেষ্টা করেছেন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তিনি সফল ভূমিকা রেখেছেন।

সাইফুজ্জামান চৌধুরী : ভূমি মন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী সফল মন্ত্রী হিসেবে পরিচিত। বিশেষ করে ভূমি ব্যবস্থাপনায় আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। এজন্য তাকে সফল মন্ত্রী হিসেবেই চিহ্নিত করা হয়।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী : নৌপরিবহনের ক্ষেত্রে অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ সংস্কার এসেছে খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর হাত ধরে। বিশেষ করে নৌপরিবহনের চারপাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদসহ নৌপথের সংস্কারে তিনি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন।

এই ১১ জন সফল মন্ত্রীর কারণে সরকারের যে আপাত ব্যর্থতাগুলো আছে সেই ব্যর্থতাগুলো এখন পর্যন্ত সামাল দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 2.8K
    Shares