প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

শিশু কন্যাকে ভিক্ষুকের কোলে রেখে পালিয়ে গেলেন তরুণী মা

250
পড়া যাবে: < 1 minute

কিশোরগঞ্জের ভৈরবের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ২-৩ দিন বয়সী এক শিশুকন্যাকে ভিক্ষুকের কোলে রেখে পালিয়ে গেছেন এক তরুণী মা। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ভৈরব বাসস্ট্যান্ডের দুর্জয়মোড়ের দক্ষিণ পাশে বঙ্গ’বন্ধুর ম্যুরাল এলাকায় চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয় লোকজনের কাছে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানা শিশুটিকে উ’দ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদের মাধ্যমে উ’পজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। বর্তমানে শিশুটি সেখানকার দ্বিতীয়তলায় মহিলা ওয়ার্ডে এক রোগীর আত্মীয় রহিমা বেগম নামের একজনের তত্ত্বাবধানে আছে। সিনিয়র নার্স মমতাজ বেগম জানিয়েছেন, শিশুটি এখানে নিয়ে আসার পর তাকে দুধ পান করানো হ’য়েছে এবং সে সুস্থ আছে।

আরও পড়ুন:  কিশোরগঞ্জে ৮শত বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী কুড়িখাই মেলা শুরু

জানা গেছে, শুক্রবার রাতে এক তরুণী মা শিশুটিকে নিয়ে বাস থেকে ভৈরবে নামার পর পাশের এক দোকানে যান। এরপর এক মহিলা ভিক্ষুককে ওই নারী বলেন, ‌শিশু’টিকে একটু রাখেন, আমি বাথরুমে যাব।’ সরল মনে ওই ভিক্ষুক শিশুটিকে কোলে রাখেন। তারপর বাথরুমের কথা বলে ওই ত’রুণী আর ফিরে আসেননি। এক ঘণ্টা অপেক্ষার পর ওই ভিক্ষুকের সন্দেহ হয়। এ সময় স্থানীয় আশরাফুল হোসেন নামে এক যুবককে তিনি ঘটনাটি জানান। পরে ওই যুবক ঘটনাটি পুলিশকে অবহিত করেন। তারপর পুলিশ ঘটনাটি থানায় জিডি করে উ’পজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানায়।

আরও পড়ুন:  নারীর অংশ গ্রহণ ছাড়া একটি দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন সম্ভব নয়

ঘটনা শুনে উ’পজেলা নির্বাহী অফিসার শিশুটিকে উপজেলা হাসপাতালের ডা. বুলবুল আহমেদের তত্ত্বাবধানে রাখতে বললে শুক্রবার রাত পৌনে ১০টায় শিশুটিকে হস্তান্তর করা হয়। জা’নতে চাইলে ভৈরব থানার উপপরিদর্শক মো. মহসীন জানান, আশরাফুল নামে এক যুবক শিশুটিকে থানায় নিয়ে আসেন। তখন তিনি ঘটনা খুলে বললে এ বিষয়ে থা’নায় জিডি করার পর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ঘটনাটি অবহিত করে শিশুটিকে উপজেলা হাসপাতালের তত্ত্বাবধানে দেওয়া হয়।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 781
    Shares