প্রচ্ছদ রাজনীতি বিএনপি

স্বাস্থ্য পরীক্ষায় মেডিকেল বোর্ডের কাছে খালেদা জিয়ার প্রশ্ন

111
মেডিকেল বোর্ডের কাছে খালেদা জিয়ার প্রশ্ন
ফাইল ফটো
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল পৌনে ৪টার দিকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রবেশ করেন চিকিৎসকরা। প্রায় ১ ঘণ্টা ৫ মিনিট পর সেখান থেকে বের হয়ে আসেন।

এ বিষয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা প্রায় ২০ মিনিট ধরে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। রোববার (১৬ সেপ্টেম্বর) চিকিৎসকেরা কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে খালেদা জিয়ার জন্য ব্যবস্থাপত্র (প্রেসক্রিপশন) দেবেন।

মেডিকেল বোর্ডে রয়েছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আব্দুল জলিল চৌধুরী (ইন্টারনাল মেডিসিন), অধ্যাপক হারিসুল হক (কার্ডিওলজি), অধ্যাপক আবু জাফর চৌধুরী (অর্থোপেডিক সার্জারি), সহযোগী অধ্যাপক তারেক রেজা আলী (চক্ষু) ও সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ (ফিজিক্যাল মেডিসিন)।

পাঁচ সদস্যের গঠিত মেডিকেল বোর্ড শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে গেলে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া তাদের কাছে প্রশ্ন করেন, ‘আমার চিকিৎসকরা কোথায়?’ তার প্রশ্নের উত্তরে চিকিৎসকরা বলেন, ‘আমরা এসেছি আপনার স্বাস্থ্যের খবর নিতে ও চিকিৎসা দিতে।’

এদিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) মেডিকেল বোর্ডের সদস্যদের কাছে খালেদা জিয়া তার সমস্যার কথা বলেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান বিএসএমএমইউর মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা.এম এ জলিল।

আরও পড়ুন:  বিএনপির গণজোয়ারে ভাটা চলছে ভাটাই চলবে

তিনি জানান, খালেদা জিয়া প্রথমে আমাদের দেখে উনার চিকিৎসকরা কই-বলে জানতে চান। পরে আমি বললাম, আমরা এসেছি, আপনার স্বাস্থ্যের খোঁজ নিতে ও চিকিৎসা দিতে। পরে তিনি আমাদের কাছে উনার সমস্যার কথা বলেন।

উনার (খালেদা জিয়া) হাতে-পায়ে সমস্যা আছে জানিয়ে অধ্যাপক এম এ জলিল বলেন, উনার হাতে-পায়ে সমস্যা আছে। আগে থেকেই এসব সমস্যার কারণে চিকিৎসকদের পরামর্শে তিনি অনেক ওষুধ খাচ্ছেন। আগামী সোমবার খালেদা জিয়ার সমস্যাগুলো নিয়ে পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড আমরা একসঙ্গে বসবো। তারপর জেল কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার করণীয় কী, কী।

এ বিষয়ে বিএসএমএমইউর পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন জানান, আশা করি সোমবার দুপুরের আগে কারা কর্তৃপক্ষকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার করণীয় বিষয়ে একটি ব্যবস্থাপত্র দেবে মেডিকেল বোর্ড।

এর আগে গত ৯ সেপ্টেম্বর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে দেখা করে খালেদা জিয়ার পছন্দ অনুযায়ী রাজধানীর কোনো বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর অনুরোধ জানায়।

এরপরই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান সংবাদ সম্মেলনে জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড হবে।

আরও পড়ুন:  প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানালেন বিএনপির এমপি

এদিকে রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির পক্ষে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করে বলেছেন, কারাবন্দী খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্ত না করা সরকারের অশুভ পরিকল্পনারই ইঙ্গিতবাহী।

সরকার কর্তৃক গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা সব আওয়ামী লীগের লোক জানিয়ে তিনি বলেন, সরকার কর্তৃক গঠিত মেডিকেল বোর্ডে অন্যতম সদস্য ডা. আবু জাফর চৌধুরী নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি প্রার্থী। তিনি দলীয় প্রার্থী হিসেবে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ব্যাপক নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। অপর সদস্য অধ্যাপক ডা. হারিসুল হক আওয়ামী লীগ সমর্থিত চিকিৎসক সংগঠন স্বাচিপ (স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ) বিএসএমএমইউ’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক। এছাড়া অধ্যাপক ডা. তারেক রেজা আলী আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য।

রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের প্রতি অনুগত চিকিৎসকদের নিয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ডে যথাযথ চিকিৎসা এবং তার শারীরিক পর্যবেক্ষণ সঠিকভাবে প্রতিফলিত হবে না। কারণ সরকার কর্তৃক গঠিত মেডিকেল বোর্ড সরকারের নির্দেশ মতোই কাজ করবে।’

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি