আর্জেন্টিনার কি কোনো আশা আছে বিশ্বকাপে যাওয়ার?

৩৩ views

প্রশ্ন গত ছয় মাসে বেশ কয়েকবার তোলা হয়েছে। কিন্তু এই প্রথম প্রশ্নের উত্তরে ‘না’ শোনার সম্ভাবনাই বেশি মনে হচ্ছে এখন। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে চারটি দলের সুযোগ মেলে। পঞ্চম দলটির সুযোগ মেলে ওশেনিয়া অঞ্চলের শীর্ষ দলের সঙ্গে প্লে অফ খেলে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে জায়গা করার। কিন্তু এক ম্যাচ হাতে রেখে আর্জেন্টিনার অবস্থা যে এখন ছয়ে!

ক্লাব ফুটবলে গোল বন্যা বইয়ে দেওয়া সব স্ট্রাইকার আর্জেন্টিনার জার্সি পরলেই গোল করতে ভুলে যান। বাছাই পর্বে ১৭ ম্যাচে মাত্র ১৬ গোল মেসি-হিগুয়েইন-আগুয়েরো-দিবালাদের। এর ফলে ১৭ ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে দশ দলের মধ্যে ছয়ে অবস্থান করছে আর্জেন্টিনা। সমান পয়েন্ট ও গোল ব্যবধান নিয়েও পেরু আছে পাঁচে। কারণ আর্জেন্টিনার চেয়ে ১০ গোল বেশি করেছে তারা।

আর্জেন্টিনার এমন দুঃসময়ে একটাই সান্ত্বনা। আজ নিজেদের মাঠে প্যারাগুয়ের কাছে শেষ মুহূর্তের দুই গোলে হেরে গেছে কলম্বিয়া (২-১)। না হলে ব্রাজিলের পর দ্বিতীয় দল হিসেবে বিশ্বকাপে জায়গা করে ফেলত দেশটি। উরুগুয়েও দুর্বল ভেনেজুয়েলার সঙ্গে ড্র করেছে বলে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করতে পারেনি। তবে সেটা কাগজে কলমেই। কারণ, পেরু কিংবা আর্জেন্টিনা নিজেদের শেষ ম্যাচে ৯ গোলের ব্যবধানে না জিতলে উরুগুয়ের বিশ্বকাপ নিশ্চিত।
আজ রাতে পেরুর বিপক্ষে যখন গোলের জন্য মাথা খুটে মরছিল আর্জেন্টিনার আক্রমণভাগ, ঠিক তখন ইকুয়েডরকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়ে তিনে উঠে এসেছে চিলি। ইকুয়েডরের প্লে অফ খেলার স্বপ্নটাও শেষ হয়ে গেছে এক ঝটকায়।

বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনার শেষ ম্যাচ ইকুয়েডরের মাঠেই। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে তিন হাজার মিটার ওপরের এ মাঠে খেলতে অস্বস্তিতে ভোগে সবাই। নিজেদের শেষ ম্যাচের জন্য এর চেয়ে কঠিন ভেন্যু পেতেন না মেসিরা।

তবে এর উল্টো পিঠেও একটা সুসংবাদ পাচ্ছে আর্জেন্টিনা। তিনে থাকা চিলির শেষ ম্যাচ ব্রাজিলের বিপক্ষে, সেটাও সাও পাওলোতে। চার ও পাঁচে থাকা কলম্বিয়া ও পেরু লড়বে পরস্পরের বিপক্ষে। ফলে আর্জেন্টিনার মূল প্রতিদ্বন্দ্বী যারা, তাদের সবার পয়েন্ট হারানোর ভালো সম্ভাবনা আছে।
আর্জেন্টিনা যদি নিজেদের ম্যাচে জেতে এবং কলম্বিয়া-পেরু ম্যাচটি ড্র হলেই বিশ্বকাপ নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকবে না মেসি-ডি মারিয়াদের। আর চিলি ও কলম্বিয়া যদি নিজেদের ম্যাচ জিতে যায়, তবে ইকুয়েডরের মাঠে জয় পেলেও প্লে অফ খেলতে হবে আর্জেন্টিনাকে। এখন যা অবস্থা, তাতে আর্জেন্টিনা পাঁচে শেষ করে প্লে অফ খেলতেও নিশ্চয়ই রাজি। কিন্তু আর্জেন্টিনার ভাগ্য এখন নিজেদের হাতে নেই। সবচেয়ে বড় অনিশ্চয়তাটা এখানেই।

এদিক দিয়ে দৌড়ে এত দিন অনেক পিছিয়ে থাকা প্যারাগুয়ে হঠাৎ করেই দেখতে শুরু করেছে বিশ্বকাপের স্বপ্ন। শেষ ম্যাচে কনমেবল অঞ্চলের সবচেয়ে দুর্বল দল ভেনেজুয়েলাকে পাচ্ছে তারা। নিজেদের মাঠে সে ম্যাচ জিতলে প্রথম পাঁচে চলে আসতেই পারে দেশটি।
দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের পয়েন্ট টেবিল এখন এতটাই জটিল, ম্যাচ বাকি আছে মাত্র একটি। অথচ এখন পর্যন্ত মূল পর্ব নিশ্চিত করেছে শুধু ব্রাজিল।
১০ অক্টোবর তাই কী রোমাঞ্চ নিয়ে অপেক্ষা করছে, কে জানে!

আর্জেন্টিনা যদি নিজেদের ম্যাচে জেতে এবং কলম্বিয়া-পেরু ম্যাচটি ড্র হলেই বিশ্বকাপ নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকবে না মেসি-ডি মারিয়াদের। আর চিলি ও কলম্বিয়া যদি নিজেদের ম্যাচ জিতে যায়, তবে বলিভিয়ার মাঠে জয় পেলেও প্লে অফ খেলতে হবে আর্জেন্টিনাকে। এখন যা অবস্থা, তাতে আর্জেন্টিনা পাঁচে শেষ করে প্লে অফ খেলতেও নিশ্চয়ই রাজি। কিন্তু আর্জেন্টিনার ভাগ্য এখন নিজেদের হাতে নেই। সবচেয়ে বড় অনিশ্চয়তাটা এখানেই।

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের পয়েন্ট টেবিল এখন এতটাই জটিল, ম্যাচ বাকি আছে মাত্র একটি। অথচ এখন পর্যন্ত মূল পর্ব নিশ্চিত করেছে শুধু ব্রাজিল।
১০ অক্টোবর তাই কী রোমাঞ্চ নিয়ে অপেক্ষা করছে, কে জানে…..

 

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন

Loading Facebook Comments ...