প্রচ্ছদ রাজনীতি আওয়ামী লীগ

উত্তরাঞ্চলের আওয়ামী লীগ পরিবারের একজন ছাত্রলীগের সভাপতি

2.6K বার দেখা হয়েছে
উত্তরাঞ্চলের আওয়ামী লীগ পরিবারের একজন ছাত্রলীগের সভাপতি

যেকোনো সময়ে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হতে পারে। গতরাতে বিদায়ী ছাত্রলীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলে, তাঁদের জানিয়ে দেওয়া হয় যে, কমিটি ঘোষণা সময়ের ব্যাপার মাত্র। তবে কমিটিতে কে সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক হচ্ছেন, তা একমাত্র শেখ হাসিনাই জানেন। যাঁদের বয়স সর্বোচ্চ ২৮ বছর ৩৬৪ দিন অর্থাৎ ২৯ বছরের একদিন কম, তারাই এবারের কমিটিতে থাকবেন বলে নিশ্চিত করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেতা

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানাচ্ছে, কমিটি নিয়ে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতা এবং ছাত্রলীগের প্রাক্তন নেতাদের ‘অতি উৎসাহে’র কারণে প্রধানমন্ত্রী অপেক্ষা করছেন। শেখ হাসিনা ভালো করে পরখ করে দেখতে চাইছেন যে, যাঁদের তিনি পছন্দ করেছেন, তাঁরা কারও পকেটের কিনা।

একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে, ছাত্রলীগ কমিটি নিয়ে সিন্ডিকেট ভাঙতেই প্রধানমন্ত্রী কালক্ষেপণের নীতি গ্রহণ করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো বলছে, উত্তরাঞ্চলের আওয়ামী লীগ পরিবারের কেউ একজন ছাত্রলীগের সভাপতি হবার সম্ভাবনা রয়েছে। ঐ ছাত্রলীগ কর্মীর দাদা এবং বাবা আওয়ামী লীগের নেতা ছিলেন। ঐ ছাত্রনেতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে পড়ালেখা করেছে। সাধারণ সম্পাদক হিসেবে যার সম্ভাবনা বেশি রয়েছে তিনি চট্টগ্রামের। বিদায়ী কমিটিতে তিনি সহ সভাপতি ছিলেন। তবে এসব চূড়ান্ত নয়। প্রধানমন্ত্রী এখনো দুই পদে তিন/চারটি নাম বিবেচনায় রেখেছেন। যারা শুধু ছাত্রলীগের প্রতি অনুগত হবে, কোনো বিশেষ নেতার প্রতি নয়, এবার তারাই ছাত্রলীগের নেতৃত্ব পাবে।

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন: