প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি

চলেছে ঈদের মোড়কে নির্বাচনী প্রচারণা

25
চলেছে ঈদের মোড়কে নির্বাচনী প্রচারণা

ঈদুল আজহা পালিত হলো দেশজুড়ে। ঈদের কদিন আগে থেকেই অবশ্য রাজধানী ফাঁকা হতে শুরু করে। রাজধানীবাসী পাড়ি জমায় গ্রামের বাড়িতে। আর রাজধানীবাসীর সঙ্গে নিজ নিজ এলাকায় ঈদের জন্য পাড়ি জমান স্থানীয় জনপ্রনিধিরাও। এই ঈদে এলাকার সবাইকে একসঙ্গে পাওয়া যায়। তাই ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের সঙ্গে চলে রাজনৈতিক প্রচারণাও।

চলতি বছরের শেষেই অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আর আগামী অক্টোবরের মাঝামাঝি ঘোষিত হতে পারে নির্বাচনী তফসিল। নির্বাচনের এই বছরে ঈদে মন্ত্রী, এমপি ও সম্ভাব্য প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণায় বাড়তি দেখা যাবে বলে আগেই ধারণা করা হয়েছিল। ঘটেছেও তাই। এবার ঈদে প্রায় সব রাজনীতিবিদই নিজ নিজ এলাকায় চলে গেছেন এবং বেশ কলেবরেই প্রচারণা চালিয়েছেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। নিজ নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেন। এরপর তিনি স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। আগামী নির্বাচনকে রাজনৈতিক প্রচারণার ফাঁকে জাতীয় রাজনীতি নিয়েও মন্তব্য করতে ভুলে যাননি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। বলেছেন, নির্বাচনে আসতে বিএনপির কোনো ভয় নেই। নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। কাজেই নির্বাচন নিয়ে বিএনপির শঙ্কার কোনো অবকাশ নেই।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম এবার কোরবানির ঈদ উদযাপন করছেন তাঁর গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে। সেখানেই ঈদের নামাজ আদায় করেছেন তিনি। পরে স্থানীয় এলাকাবাসীর মধ্যে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আজ বুধবার সকালে সিলেটের শাহী ঈদগাহে ঈদের জামাতে অংশ নিয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিমানে করে সিলেট যান অর্থমন্ত্রী। ঈদের নামাজ শেষে তিনিও সবার সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

একই ভাবে আওয়ামী লীগের প্রায় সব নেতাই ঈদের নামাজ আদায় করেছেন নিজ নিজ এলাকায়। এছাড়া ঈদের নামাজ ও কোরবানির মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন দলের অনেক মনোনয়ন প্রত্যার্শী।

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের মানিকপুর গ্রামের বাড়িতে ঈদের নামাজ পড়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ। ঈদের মোড়কে রাজনৈতিক প্রচারণা শেষে জাতীয় রাজনীতি নিয়েও মন্তব্য করতে ভোলেননি এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, সকলের অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন যদি তারা চান, তাহলে তাদের সংলাপে আসতে হবে। এর বিকল্প কোনও পথ নেই।

বিএনপির এমন অনেক নেতাই নিজ নিজ এলাকায় গিয়ে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন এবং আগামী নির্বাচনের জন্য প্রচারণা চালিয়ে এসেছেন। দলটি নির্বাচনে যাবে কি যাবে না- এ নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও ঈদে ফ্রি প্রচারণায় বিএনপি নেতারা পিছিয়ে ছিল না।

আরও পড়ুন:  গুলশান কার্যালয়ে বৈঠক শেষে যা জানাল জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের নেতারা

অবশ্য বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতাদের কয়েকজন আজ বড় কোনে কর্মসূচি ছাড়াই ভালো মিডিয়া কাভারেজ পেয়েছেন। অনুমতি না থাকলেও বিএনপির কয়েকজন নেতা আজ কারান্তরীণ বেগম জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যান। এই দলে ছিলেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা আব্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস। তবে কারাগারেরর কাছেই যেতে পারেননি তাঁরা। এর আগেই নাজিম উদ্দীন রোডের মাথায় পুলিশের ব্যারিকেড থেকে ফিরে যেতে হয় তাঁদের। তবে বেশ মিডিয়া কাভারেজ পেয়েছেন তাঁরা। ঈদের দিন রাজনৈতিক ঘটনা বলতে এই একটিই। বলতে গেলে আজ দুপুর থেকেই সব সংবাদমাধ্যমে এটি নিউজ আকারে প্রচার হচ্ছে। বলা যায়, রাতের টকশোরও খোরাক হবে বিএনপির নেতাদের ওই পদক্ষেপ।

ঈদের সংসদের বিরোধী দল এরশাদের জাপাও কোনোভাবে পিছিয়ে নেই। রংপুর কালেক্টরেট ঈদ গাহ মাঠে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ। তবে এরশাদ প্রচারণার জন্য নামাজের আগের সময়কেই বেছে নেন। সমবেত মুসল্লিদের উদ্দেশে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতাকালে আবেগঘন কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘এটাই আমার জীবনের শেষ নির্বাচন, তাই শেষ বারের মতো রংপুরের জনগণের সেবা করে মরতে চাই।’ তিনি আরও বলেন, রংপুরের মানুষের ঋণ আমি কোনও দিন শোধ করতে পারবো না। জীবনের শেষ প্রান্তে এসে আর একবার জনগণের সেবা করার সুযোগ চাই।’

প্রধান রাজনৈতিক দলগুলো ছাড়াও অন্য দলগুলোও এই ঈদকে নির্বাচনী প্রচারণায় মাধ্যম হিসেবে বেছে নেয়। অনেকে ঈদের নামাজ ও প্রচারণার পাশাপাশি কোরবানি করে মাংস বিলিয়ে দেওয়ারও উদ্যোগ নেয়। দেশে অনেক এলাকায় এমন উদ্যোগ দেখা গেছে। তাই এবার কোরবানির হারও ছিল গত কয়েকবারের তুলনায় বেশি। এককথায় বলা চলে, ভালোই চলেছে ঈদের মোড়কে নির্বাচনী প্রচারণা।

শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন

Loading Facebook Comments ...