প্রচ্ছদ জীবন-যাপন

বিছানায় পুরুষ কত মিনিটের খেলোয়াড়? অনেক এগিয়ে মেয়ারা!

770
বিছানায় পুরুষ কত মিনিটের খেলোয়াড়? অনেক এগিয়ে মেয়ারা
প্রতীকী ছবি।

বাঘ নয়, সঙ্গিনীর সঙ্গে বিছানায় বিড়ালের মতোই মিইয়ে যায় বাংলাদেশি পুরুষরা! বড্ড তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যায় তারা। একটি আন্তর্জাতিক সমীক্ষা থেকে এমনই তথ্য মালুম হয়েছে। তুলনায় ভাল অবস্থায় রয়েছে বিদেশি পুরুষরা।

কোন দেশের পুরুষরা বিছানায় কতক্ষণ টিকে থাকে, তা নিয়ে একটি সমীক্ষা চালিয়েছিল ‘সসি ডেটস’। ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, কানাডা ও আমেরিকায় এই সমীক্ষা চালানো হয়। ৩,৮৩৬ জন নারী-পুরুষকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। মেয়েরা আশা করে, অন্তত ২৫ মিনিট ৫১ সেকেন্ড টিকে থাকবে তার পুরুষসঙ্গী। কিন্তু, ভারতীয় পুরুষরা বিছানায় টিকে থাকে গড়ে ১৫ মিনিট ১৫ সেকেন্ড। অস্ট্রেলিয়ার পুরুষদের ক্ষেত্রে এই সময়সীমা হল ১৬ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড। ব্রিটেন ও কানাডার পুরুষরা টিকে থাকে যথাক্রমে ১৬ মিনিট ৫৮ সেকেন্ড এবং ১৭ মিনিট। সবচেয়ে দীর্ঘ সময় টিকে থাকে মার্কিন পুরুষরা, ১৭ মিনিট ৫ সেকেন্ড।

সমীক্ষার রিপোর্ট ঘাঁটলে একটা জিনিস পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে। তা হল, বাংলাদেশি পুরুষদের পাশাপাশি বিদেশি পুরুষরাও সঙ্গিনীর প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ। এর ফলে মেয়েদের অর্গাজমের আগেই পুরুষরা রণে ভঙ্গ দেয়। ফলে, মেয়েদের তৃপ্তি হয় না।

সমীক্ষা থেকে আরও জানা যাচ্ছে, বাংলাদেশি পুরুষরা অল্প বয়সের তুলনায় বেশি বয়সে অর্থাৎ ৪৫-৫০ বছর বয়সে বিছানায় ভাল পারফর্ম করে। বয়স বাড়লে তাদের টিকে থাকার ক্ষমতা বাড়ে। বিদেশি পুরুষরা অবশ্য অল্প বয়স থেকেই বিছানায় ভাল খেলে।

আরও পড়ুন:  প্যান্টের পকেট ছেলেদের বড় আর মেয়েদের ছোট হয় কেন ?

অথচ বাংলাদেশি মেয়েদের যৌনক্ষুধা কিন্তু বিদেশি মেয়েদের থেকে কোনও অংশে কম নয়। যদিও বিদেশি মেয়েরা যৌনতার চাহিদার কথা স্পষ্টভাবে তাদের স্বামী অথবা বয়ফ্রেন্ডকে বলতে পারে। বাংলাদেশি মেয়েরা সামাজিক কারণেই তা মুখ ফুটে বলতে কুণ্ঠাবোধ করে। কিন্তু, সেক্স শুরু হয়ে গেলে বিছানায় তারা বাঘিনী হয়ে ওঠে।

সেক্সের ধরনের ক্ষেত্রে পার্থক্য লক্ষণীয়। বিদেশি মেয়েরা ওরাল এবং অ্যানাল সেক্স করতে ব্যাপকভাবে পছন্দ করে। কিন্তু, বাংলাদেশি মেয়েদের একটা বড় অংশই অ্যানাল সেক্স করতে ঘেন্না পায়। তারা ভ্যাজাইনাল সেক্স নিয়েই সন্তুষ্ট থাকে। এ ছাড়াও সেক্স টয় ব্যবহারের ক্ষেত্রে বিদেশি মেয়েরা বাংলাদেশি মেয়েদের থেকে অনেক বেশি এগিয়ে। তাই আমেরিকা, ইউরোপের বাজারে সেক্স টয় বিক্রিও হয় প্রচুর পরিমাণে। তুলনায় বাংলাদেশি সেক্স টয়ের বাজার এখনও পিছিয়ে রয়েছে।

শেয়ার করুন :
  • 12
    Shares

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন

Loading Facebook Comments ...