প্রচ্ছদ বিশ্ব সংবাদ

হঠাৎ করে ভেঙ্গে পড়ল ব্রিজ , নিহত ৫

466
হঠাৎ করে ভেঙ্গে পড়ল ব্রিজ , নিহত ৫
ছবি : সংগৃহীত

পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ শহরতলির এই গুরুত্বপূর্ণ এবং ব্যস্ত মাঝের হাট ব্রিজ। হঠাৎ করে ভেঙ্গে পড়ে মঙ্গলবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪ টার দিকে। ভাঙার মুহূর্তে ব্রিজটির উপর অনেক যানবাহন ছিল বলে জানা গেছে। এ দুর্ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যুর খরব পাওয়া গেছে এবং বহু লোকের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দুর্ঘটনার কারণে আপাতত বন্ধ বজবজ-শিয়ালদা শাখার ট্রেন চলাচল। বন্ধ রয়েছে ডায়মন্ড হারবার রোডও। তৈরি হয়েছে ব্যাপক যানজট।

জানা গেছে, ব্রিজের তলায় একাধিক অ্যাপ ক্যাব ও একটি মিনি বাস রয়েছে। উদ্ধারকাজে নেমেছে সেনাবাহিনী।

দুর্ঘটনার পরপরেই পুলিশ ও উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছান। সাধারণ মানুষে উদ্ধারকাজেও যোগ দেন।

ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঘটনার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মূখ্যমন্ত্রী বলেন, এমন ঘটনা দু:খজনক। উদ্ধারকাজ ও চিকিৎসা ব্যবস্থার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমরা চাই ক্ষতিগ্রস্থরা যেন দ্রুত চিকিৎসা সেবা পায়। একজনের মৃত্যুও দুঃখজনক।

পরিস্থিতির উপর সার্বক্ষণিক নজর রাখছি বলেও মন্তব্য করেন মমতা।

মমতা জমানায় ব্রিজ ভাঙার ইতিহাস ভয়ানক

২০১১ সালে ক্ষমতায় আসে তৃণমূল কংগ্রেস। সেবার বিধানসভা ভোটের ঠিক আগে আগে বাম আমলের শেষের দিকে উদ্বোধন হয় উল্টোডাঙা উড়ালপুলের। আর সেই উদ্বোধনের মাত্র ২৬ মাসের মাথায় এক সকালে ভেঙে পড়ে সেই উড়ালপুল। ২০১৩ সালের ৪ মার্চ ভোর রাতে একটি লরি নিয়ে ভেঙে পড়ে ভিআইপি রোড থেকে ইএম বাইপাস যাওয়ার উড়ালপুলটি। না, সেবারে মৃত্যু হয়নি কারও। আহত হয়েছিলেন তিন জন।

সেবার ‘দায়’ নিয়ে রাজনৈতিক কথা বলার ছিল তৃণমূল কংগ্রেসের। বলেও ছিল। বাম আমলে তৈরি সেই সেতু নিয়ে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য সরকারের উপরেই অভিযোগের আঙুল উঠেছিল। এমনটাও বলা হয়েছিল যে, বিধানসভা ভোটের আগে উদ্বোধন করার জন্যই নাকি তাড়াহুড়ো করে তৈরি হয় ব্রিজ।

আরও পড়ুন:  হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করল পুরো মুসলিম পরিবার

কিন্তু পাল্টা যুক্তিও ছিল। বলা হয়েছিল উড়ালপুল বাম আমলে তৈরি হলেও তৃণমূল আমলে ওই ব্রিজে কোনও নজরদারি ছিল না। ওই সেতু ঠিক কতটা ভার বহনে সক্ষম, মাত্রাতিরিক্ত পণ্য নিয়ে যান চলাচল হচ্ছে কিনা তার দিকে নজর ছিল না। বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন, সেই নজরদারির অভাবই দুর্ঘটনার কারণ।

এর পরে পরেই পোস্তায় দুর্ঘটনা। সেই সময়ে নির্মিয়মাণ উড়ালপুল ভেঙে পড়ে ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ ভেঙে পড়ে বড়বাজার এলাকায় বিবেকানন্দ উড়ালপুল। সেবারও ‘দায়’ নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোর চলেছিল। তবে অনেকটাই চাপে ছিল তৃণমূল কংগ্রেস সরকার। সরাসরি বেশ কয়েকজন তৃণমূল কংগ্রেস নেতার নামও জড়িয়ে যায়। ২০১৬ সালে বিধানসভা ভোটের আগে রাজনৈতিক উত্তাপও জুড়ে যায় সেই দুর্ঘটনার সঙ্গে।

এবার মাঝেরহাট। এই সেতু অনেকটাই পুরনো। তৈরি করেছিল পোর্ট ট্রাস্ট। তবে এই সেতুর নজরদারির দায়িত্বও ছিল রাজ্য সরকারের পূর্ত দফতরের উপরে। আর নজরদারি যে ঠিক মতো হত না সেটাও স্পষ্ট হয়েছে অতীতে। অনেকবারই এমন ছবি দেখা গিয়েছে যাতে স্পষ্ট ছিল যে, ব্রিজের পরিস্থিতি খারাপ। এই সেতুর বিভিন্ন অংশে ফাঁটল, জল চুঁইয়ে পড়ার ছবি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম বারবার তুলে ধরেছে। কিন্তু তাতেও টনক নড়েনি সরকারের। আর তারই খেসারত দিতে হল কলকাতাকে।

 

শেয়ার করুন :
  • 16
    Shares

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন

Loading Facebook Comments ...