প্রচ্ছদ ক্রিকেট যেভাবে দেখবেন বাংলাদেশ-আফগানিস্তানের ম্যাচ

যেভাবে দেখবেন বাংলাদেশ-আফগানিস্তানের ম্যাচ

64
যেভাবে দেখবেন বাংলাদেশ-আফগানিস্তানের ম্যাচ
ছবি : সংগৃহীত
পড়া যাবে: 3 মিনিটে
advertisement

এশিয়া কাপের সুপার ফোরে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। রোববার আবুধাবি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

advertisement

ম্যাচ : বাংলাদেশ-আফগানিস্তান (এশিয়া কাপ, সুপার ফোর)।
কবে : ২৩ সেপ্টেম্বর, রোববার।
কখন : বিকেল ৫.৩০ মিনিট।
কোথায় : শেখ জায়েদ স্টেডিয়াম, আবু ধাবি।
খেলা দেখাবে যে চ্যানেল : বিটিভি, মাছরাঙা, গাজী টিভি ও স্টার স্পোর্টস টু।

বাংলাদেশ :

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুর্দান্ত এক জয় দিয়েই এশিয়া কাপ শুরু করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু পরবর্তী দুই ম্যাচ যেন স্বপ্নভঙ্গেরই গল্প। আফগানিস্তানের কাছে অসহায় আত্মসমর্পন করে টাইগাররা। হারে ১৩৬ রানের বিশাল ব্যবধানে।

আর সুপার ফোরের পরের ম্যাচে ভারতের কাছে হারে ৭ উইকেটে। ব্যাট-বল মিলিয়ে কোন বিভাগেই ভালো করতে পারেনি টাইগররা। ইনজুরির কারণে ছিটকে পড়া তামিম ইকবালের অভাব ভালোভাবেই ধরা পড়ছে। দলের অধিনায়ক মাশরাফিও ব্যাটিংকে দায়ী করেছেন। আজকের ম্যাচে আফগানদের বিপক্ষে ভালো করতে হলে সব বিভাগেই নিজেদের সেরাটা দিতে হবে বলে মনে করেন টাইগার অধিনায়ক।

আফগানিস্তান :

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে এবারের টুর্নামেন্ট শুরু করেছে আফগানিস্তানও। তারপর তাদের দ্বিতীয় শিকার হয় বাংলাদেশ। স্পিনারদের ঘূর্ণির জাদুতে কুপোকাত করে টাইগারদের। যদিও সুপার ফোরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে হেরেছে তারা। তবু সেই ম্যাচে ভালোই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে আসগার আফগানের দলটি।

র‌্যাঙ্কিং : আইসিসি’র সর্বশেষ ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ৭। অন্যদিকে অন্যদিকে আফগানিস্তান ১০ নম্বরে।

মুখোমুখি লড়াই : এশিয়া কাপে এর আগে দুইবার মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। দুইবারই জিতেছে আফগানিস্তান।

সুপার ফোরে শুভ সূচনা করতে পারেনি বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। নিজ নিজ খেলায় তারা হেরেছে। ফলে টুর্নামেন্টে নিজেদের টিকিয়ে রাখতে হলে সুপার ফোরের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় ছাড়া কোনো পথ খোলা নেই বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের। তাই জয়ের লক্ষ্য নিয়েই রোববার সুপার ফোরে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। তাছাড়া আফগানিস্তানকে হারিয়ে প্রতিশোধ গ্রহণও রয়েছে আরেক টার্গেট। আবু ধাবিতে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় শুরু হবে দু’দলের লড়াই।

আরও পড়ুন:  এশিয়া কাপ ফাইনালে বাংলাদেশ

চলমান এশিয়া কাপে একই গ্রুপে ছিলো বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। ইতোমধ্যে নিজেদের সামর্থ্যের পরিচয় দিয়েছে তারা। তবে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে পরাজিত হয় টাইগাররা।

আবু ধাবিতে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট হাতে নেমে ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৫৫ রান করে আফগানিস্তান। অষ্টম উইকেটে গুলবাদিন নাইব ও রশিদ খানের দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুণ্যে বাংলাদেশের সামনে লড়াকু টার্গেট দিতে পারে আফগানিস্তান। অষ্টম উইকেটে ৫৬ বলে নিজেদের সর্বোচ্চ ৯৫ রানের জুটি গড়েন নাইব ও রশিদ।

২৫৬ রানের টার্গেটে ব্যাট হাতে নেমে যাওয়া ব্যর্থতার ষোলোকলা পূর্ণ করে বাংলাদেশ। মাত্র ১১৯ রানেই গুটিয়ে যায় তারা। তাই আফগানদের কাছে তৃতীয়বারের মত হারের লজ্জা পায় বাংলাদেশ। তবে ঐ হার গ্রুপ পর্যায়ে ছিল বলে টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের লক্ষ্য পূরণে কোনো ছেদ ফেলতে পারেনি। কিন্তু সুপার ফোরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় ছাড়া অন্য কোনো পথ খোলা নেই বাংলাদেশের। টুর্নামেন্টের টিকে থাকতে হলে জিততেই হবে বাংলাদেশকে।

তবে বর্তমানে নিজেদের নিয়ে বেশ চিন্তার মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ। সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন শ্রীলংকাকে ১৩৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে এবারের আসরে যাত্রা শুরু করেছিল টাইগাররা। এরপর গ্রুপ পর্বে আফগানিস্তানের কাছে ও সুপার ফোরের প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে হারের লজ্জা পায় টাইগাররা। তাই শুরুর গৌরব ধরে রাখতে পারেনি বাংলাদেশ।

এ জন্য ভারতের কাছে হারের পর দল নিয়ে চিন্তিত অধিনায়ক মাশরাফি নিজেও। তাই তো টুর্নামেন্টে এখন একটি জয়ের সন্ধানে থাকা ম্যাশ বলেন, ‘একটি ম্যাচ সবকিছু বদলে দিতে পারে। আমরা এখনো টুর্নামেন্টে টিকে আছি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে পরের ম্যাচটি আমাদের জন্য কঠিন। ঐ ম্যাচে ভালো পারফরমেন্স করতে হবে আমাদের।’

আরও পড়ুন:  আফগানিস্তানে মসজিদের ভেতরে বো’মা হা’মলা ,৬২ মুসল্লি নি’হত

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ। কারণ আফগানদের বোলিং লাইন-আপ অনেক বেশি শক্তিশালী বলে মনে করেন মাশরাফি, ‘আফগানিস্তানের বোলিং আক্রমন অনেক বেশি শক্তিশালী। এমন দলের বিপক্ষে ভালো ফল পেতে হলে ভালো পারফরমেন্স করতে হবে।’

তবে বাংলাদেশের চিন্তার বড় কারণ ‘ব্যাটিং’। প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে ২৬১ রান করার পর পরের দু’ম্যাচে ২ শ’র ধারে কাছেও যেতে পারেনি বাংলাদেশ। তাই বাংলাদেশের ব্যাটিং নিয়ে চিন্তিত মাশরাফি, ‘আমাদের বোলিং এখনো ভালো হচ্ছে। কিন্ত মূল চিন্তার কারণ ব্যাটিং। আশা করছি, আমরা ঘুরে দাঁড়াব।’

ওয়ানডেতে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান সর্বশেষ মুখোমুখি হয়েছিলো ২০১৬ সালে। বাংলাদেশের মাটিতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি ২-১ ব্যবধানে সিরিজটি জিতেছিল মাশরাফির নেতৃত্বাধীন দলটি।

ওয়ানডে ক্রিকেটে ছয়বার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। তিনবার করে জয় পেয়েছে দু’দল।

বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ মিথুন, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, আরিফুল হক, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদি হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, আবু হায়দার রনি, নাজমুল হোসেন শান্ত ও মুমিনুল হক।

আফগানিস্তান দল : আসগর আফগান (অধিনায়ক), মোহাম্মদ শাহজাদ, ইহসানুল্লাহ জানাত, জাবেদ আহমাদি, রহমত শাহ, হাশমত শহিদি, মোহাম্মদ নবী, রাশিদ খান, নজিবুল্লাহ জাদরান, মুজিব উর রহমান, আফতাব আলম, সামিউল্লাহ সিনওয়ারি, মুনির আহমেদ কাকার, সৈয়দ আহমদ শেরজাদ, শরাফুদিন আশরাফ ও ওয়াফাদার।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

advertisement