প্রচ্ছদ বাংলাদেশ উপজেলা

সরকারি গাছ জব্দ করায় বন বিভাগের কর্মচারীকে মা’রধর ও পু’রুষা’ঙ্গ ধরে টানাটানি করল চেয়ারম্যান

132
সরকারি গাছ জব্দ করায় বন বিভাগের কর্মচারীকে মা’রধর ও পু’রুষা’ঙ্গ ধরে টানাটানি করল চেয়ারম্যান
পড়া যাবে: < 1 minute

পটুয়াখালীর বাউফলে সরকারি গাছ জব্দ করে নিয়ে আসার সময় বন বিভাগের এক কর্মচারীকে মারধর করে চেয়ারম্যান তার পু’রুষা’ঙ্গ ধরে টা’নাটা’নি করেছেন বলে আভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় কর্মচারীকে বাঁচাতে গেলে ইউপি সদস্য মো. মজিবুর রহমান ও স্থানীয় চৌকিদার মো. দলীল উদ্দিনকে লাঞ্চিত করেন কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. শাহিন হাওলাদার।

জানা গেছে, ইউপি চে’য়ারম্যান শাহিন হাওলাদারের ঘনিষ্ট কয়েকজন লোক বগা-বাহেরচর সড়কের বৌলতলী চৌরাস্তা থেকে স্থানীয় সরকার বিভাগের একিট আকাশমনি গাছ কেটে নিচ্ছিলেন। এ খবর পেয়ে বগা তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে লোকজন পালিয়ে যায়। পুলিশ এসময় ওই গাছসহ একটি ইঞ্জিনচালিত টমটম গাড়ি, দা ও কুঠার জব্দ করে স্থানীয় চৌকিদার দলিল উদ্দিন মোল্লার জিম্মায় রাখেন।

আরও পড়ুন:  লুপা তালুকদার এ যেন লেডি শাহেদ

বৃহস্পতিবার উপজেলা বনবিভাগের কর্মচারী জয়নাল আবেদীন জব্দকৃত গাছ ও অন্যান্য মালামাল আনার জন্য ঘটনাস্থলে গেলে ইউপি চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার তাকে মারধর করে এবং তার পুরুষাঙ্গ ধরে টানাটানি করেন।

ওই সময় ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো: মজিবুর রহমান এবং স্থানীয় চৌকিদার দলিল উদ্দিন মোল্লা এগিয়ে এলে তাদেরকেও লাঞ্চিত করেন। ঘটনা শুনে বনবিভাগের কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদারকে মোবাইল ফোনে কল দিলে তার সাথেও অশোভন আচরণ করেছেন বলে জানা বন বিভাগের কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন।

তবে এ ঘটনা অস্বীকার করেছেন চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার। তিনি বলেন, ওই গাছ ব্যক্তি মালিকানাধীন গাছ। তিনি কারো সাথে কোন খারাপ আচরণ করেননি বরং বন বিভাগের কর্মকর্তা তার সাথে খারাপ আচরন করেছে।

আরও পড়ুন:  জঙ্গি নিয়ন্ত্রনে সারা বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ পুলিশ একটি রোল মডেল

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 55
    Shares