প্রচ্ছদ বাংলাদেশ উপজেলা

পুকুর পাড়ের ঝুপড়ি ঘরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা সেই নারী স্বাস্থ্যকর্মীকে ৭ দিন পর উদ্ধার করল পুলিশ

126
পুকুর পাড়ের ঝুপড়ি ঘরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা সেই নারী স্বাস্থ্যকর্মীকে ৭ দিন পর উদ্ধার করল পুলিশ
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় আওয়ামী লীগ নেতার নির্দেশে নি’র্জন পুকুর পাড়ের ঝুপড়ি ঘরে কো’য়ারেন্টাইনে রাখা এক নারী স্বাস্থ্যকর্মীকে (২১) সাত দিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বিকেলে কোটালীপাড়া থানা পুলিশ তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে তাদের বাড়ি নিয়ে যায়। পরে তাদের ঘরের পাশে একটি ছাপড়া ঘর তুলে সেখানে তার থাকার ব্যবস্থা করে। এছাড়া পুলিশ ওই ঝুপড়িঘরটি ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে।

ওই স্বাস্থ্য কর্মী ঢাকা ঢাকার ইমপালস হাসপাতালের চিকিৎসকের এ্যাটেনডেন্ট পদে ওই নারী চাকরি করেন। করোনা সংক্রমনের কারণে হাসপাতাল বন্ধ হয়ে যায়। গত মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) ওই স্বাস্থ্য কর্মী কোটালীপাড়া উপজেলার সাদুল্লাহপুর ইউনিয়নের লখন্ডা গ্রামের বাড়িতে আসেন।

বাড়িতে আসার পর সাদুল্লাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রশান্ত বাড়ৈর নির্দেশে এই নারী স্বাস্থ্যকর্মীকে এলাকাবাসী একটি নির্জনস্থানে পুকুরের মধ্যে তালপাতা দিয়ে ঝুপড়ি ঘর তৈরী করে তার মধ্যে কোয়ারেন্টিনে রাখেন। প্রায় ১ সপ্তাহ ধ’রে রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে এই নারী স্বাস্থ্যকমী ওখানে অ’বস্থান করতে থাকেন। এটি সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফে’সবুকে ভাইরাল হওয়ার পর গোটা কোটালীপাড়া উপজেলাব্যাপী আ’লোচনার ঝড় ওঠে।

ওই স্বাস্থ্য কর্মী জানান, ঢাকার ইমপালস হাসপাতালে তি’নি চা’কুরি করেন। ক’রোনা ভা’ইরান সং’ক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ায় হাসপাতাল কতৃপক্ষ হাসাপাতাল বন্ধ করে তাকে ছু’টি দিয়ে দেয়। ছুটিতে তিনি বা’ড়িতে আসেন। বা’ড়িতে আসার খবর এ’লাকায় ছড়িয়ে পড়লে এ’লাকাবাসী এই না’রী স্বাস্থ্যকর্মীকে তার বাড়ির প্রায় ৪০০মিটার দূরে একটি নি’র্জনস্থা’নে পু’কুরের ভিতর তালপাতা দিয়ে ঝু’পড়ি ঘর তৈরী করে তাকে কো’য়ারেন্টিনে রাখেন।

আরও পড়ুন:  বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তুলবো

ভুক্তভোগী ওই নারী স্বাস্থ্যকর্মী আরো বলেন, আজ প্রায় এক সপ্তাহ ধরে আমি এখানে রোদে পু’ড়ে বৃষ্টিতে ভিজে মা’নবেতর জীবন যাপন করেছি। খুব কষ্ট হয়েছে। একজন স্বাস্থ্যকর্মী হিসেবে আমি অ’নেক মানুষকে স্বাস্থসেবা দিয়েছি। আর আজ এখানে থেকে আমার স্বা’স্থ্য হু’মকির মুখে পড়েছে। মানুষ যে এতোটা নি’ষ্ঠুর হতে পারে তা আমার আগে জানাছিল না। ৭ দিন পর আজ সোমবার পুলিশ আমাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে।

কান্না জনিত কন্ঠে ওই স্বাস্থ্যকর্মীর মা বলেন, আমার স্বামী নেই। আমার এই মেয়েটাই একমাত্র উপার্জন ক্ষম। তার আয়ে আমার সংসার চলে। আ’মার মেয়ের এখনো বি’য়ে হয়নি। তাকে এভাবে একটি পুকুরের মধ্যে ঝু’পড়ি ঘরে রাখা হয়েছিলো। এলাকার আওয়ামী লীগ নেতা প্রশান্ত বাড়ৈ চা’প সৃষ্টি করে আমার মেয়েকে এখানে রে’খেছিলো। আমি ওই আওয়ামীলীগ নেতার শাস্তি চাই।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ নেতা প্রশান্ত বাড়ৈর কাছে জা’নতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, এলাকাবাসীর সি’ন্ধান্তেই ওই নারী স্বাস্থ্যকর্মীকে পু’কুরের মধ্যে ঝু’পড়ি ঘর তৈরী করে সে’খানে রাখা হয়েছে। আমি একা কোন সি’দ্ধান্ত দেইনি। এখন অ’পরাধ হলে সবার হবে। এখানে আমার একার দায় নেই।

আরও পড়ুন:  গোপালগঞ্জে মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষা

কোটালীপাড়া থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, ঝু’পড়ি ঘর থেকে ওই নারীকে উদ্ধার করে তাদের ঘরের পাশে নতুন একটি ছাপড়া ঘর তুলে সেখানে তাকে রাখা হয়েছে। এছাড়া ওই ঝুপড়িঘর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ওই নারী স্বাস্থ্য কর্মীর পক্ষ থেকে অভিযোগ দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাহফুজুর রহমান বলেন, বিকেলে আমি ওই নারী স্বাস্থ্য কর্মীর বাড়িতে গিয়েছিলাম। তাকে আমরা কিছু খাদ্য সহায়তা দিয়েছি। তার কোন সমস্যা হলে আমাদের জা’নাতে বলেছি। তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ফরিদপুর পাঠানো হব। ওই নারী স্বাস্থ্যকর্মীকে যারা অমানবিকভাবে ঝুপড়ি ঘরের ভিতর রেখেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।