প্রচ্ছদ জানা অজানা

করো’নায় মৃ’ত্যুর দ্বিগুণ ঝুঁ’কিতে যারা, উঠে এল গবেষণায়

87
করো'নায় মৃ ত্যুর দ্বিগুণ ঝুঁ’কিতে যারা
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

করো’না ভা’ই’রাসের কাছে অস’হায় হয়ে প’ড়েছে গোটা বিশ্ব। এই ভা’ই’রাসের বিষাক্ত ছোবলে বিশ্বব্যাপী প্রতি মুহূ’র্তে বাড়ছে আক্রা’ন্ত ও মৃ’ত্যুর সংখ্যা। আধুনিক চিকৎসাবিজ্ঞান এখনও পর্যন্ত তেমন কোনও কা’র্যকরী প্রতিষেধক আবিষ্কার ক’রতে না পারায় প্রতি মুহূ’র্তে দীর্ঘ হচ্ছে মৃ’ত্যুর মিছিল।

এই ভা’ই’রাসের তা’ণ্ডবে বিশ্বজুড়ে ইতোমধ্যে মৃ’ত্যু হয়েছে প্রায় ৪ লাখ মানুষের। এমন অব’স্থায় জা’না গেল কারা করো’না য় দ্বিগুণ মৃ’ত্যু ঝুঁ’কিতে রয়েছে। এক গবেষণা প্র’তিবেদন থেকে জা’না যায়, উচ্চ র’ক্তচা’পের রো’গীরা করো’না য় মৃ’ত্যুর দ্বিগুণ ঝুঁ’কিতে আছেন। তাদের মধ্যে যারা র’ক্তচা’প নি’য়ন্ত্রণে রাখতে ওষুধ সেবন করেন না তাদের ঝুঁ’কি আরও বেশি।

শুক্রবার ইউরোপিয়ান হার্ট জার্নালে প্র’কাশিত এক গবেষণা প্র’তিবেদন থেকে এমনটাই জা’না গেছে। খবর দ্য সান ও বেলফাস্ট টেলিগ্রাফের। ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৫ মা’র্চের মধ্যে চীনের উহানের হুশেনশান হাসপাতা’লে ভর্তি হওয়া ৩০০ রো’গীর উপর গবেষণা চালিয়ে এই ফল পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। পাশাপাশি আয়ারল্যান্ডের ন্যাশনাল ইউনিভা’র্সিটির গবেষকরাও ২ হাজার ৮৬৬ জনের ওপর গবেষণা চালিয়ে একই ফল পেয়েছেন।

আরও পড়ুন:  গণপরিবহনে যাত্রীদের এখন ‘জামাই আদর‘

গবেষণায় নেতৃত্ব দেওয়া চীনের জিজিং হাসপাতা’লের প্রফেসর ফেই লি এ বিষয়ে বলেছেন, ‘এটা গু’রুত্ব পূর্ণ যে উচ্চ র’ক্তচা’পের রো’গীদের বুঝতে হবে তারা করো’না ভা’ই’রাসে আক্রা’ন্ত হলে অন্যদের চেয়ে দ্বিগুণ মৃ’ত্যু ঝুঁ’কিতে থাকবে। ম’হামা’রির এই সময়ে তাদের নিজেদের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে। সত’র্ক থাকতে হবে। তারা যদি আক্রা’ন্ত হয় তাহলে আরো বেশি খেয়াল রাখতে হবে।’

এদিকে ন্যাশনাল ইউনিভা’র্সিটি অব আয়ারল্যান্ডের গবেষকরা ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৫ মা’র্চের মধ্যে হাসপাতা’লে ভর্তি হওয়া ২ হাজার ৮৬৬ জন রো’গীকে নিয়ে গবেষণা চালান। তাদের মধ্যে ৮৫০ জনের (২৯.৫ শতাংশ) হাইপারটেনশন তথা উচ্চ র’ক্তচা’পের স’মস্যা ছিল। এদের মধ্যে ৩৪ জন (৪ শতাংশ) হাসপাতা’লে ভর্তি হওয়ার পর পরই মা’রা যায়। আর বাকি ২ হাজার ১৭ জনের (যাদের উচ্চ র’ক্তচা’পের স’মস্যা নেই) মধ্যে মা’রা যায় ২২ জন (১.১ শতাংশ)।

এ ছাড়া উচ্চ র’ক্তচা’পের যেসব রো’গী ওষুধ সেবন ক’রতেন না তাদের ১৪০ জনের মধ্যে মা’রা যায় ১১ জন (৭.৯ শতাংশ)। আর যারা র’ক্তচা’প নি’য়ন্ত্রণে রাখতে ওষুধ সেবন ক’রতেন তাদের ৭১০ জনের মধ্যে মা’রা যায় ২৩ জন (৩.২ শতাংশ)।

আরও পড়ুন:  অনেক মানুষের কখনো করো'না হবেই না

এ বিষয়ে লি বলেছেন, ‘সুতরাং আম’রা প’রাম’র্শ দিচ্ছি ডাক্তারের সুপারিশ ছাড়া উচ্চ র’ক্তচা’পের রো’গীরা করো’না আক্রা’ন্ত হওয়ার পর অ্যান্টিহাইপারটেনসিভ ওষুধ সেবন ব’ন্ধ করবেন না।’

এরপর গবেষক দল উচ্চ র’ক্তচা’পের ওষুধ আরএএএস (র‌্যাস), এসিই ও এআরবি,এস সেবনকারী ২৩০০ রো’গীর ওপর গবেষণা চালান। এই গবেষণায় দেখা যায় এসব রো’গীদের মৃ’ত্যুহার কম। অর্থাৎ উচ্চ র’ক্তচা’পের এই ধ’রনের ওষুধগুলো করো’না র বি’রুদ্ধে কিছুটা কাজ করে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 40
    Shares