প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

করো’না বি’স্ফোরণের আশ’ঙ্কা!

23
করো'না বি'স্ফোরণের আশ'ঙ্কা!
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

বাংলাদেশ-ভা’রতসহ দক্ষিণ এশিয়া দিন দিন করো’না সংক্রমণের হট স্পট হয়ে উঠছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারলে এ অঞ্চলে করো’নার ভ’য়াবহ বি’স্ফোরণ ঘটতে পারে বলে গভীর আশ’ঙ্কা জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করো’না সংক্রমণ। বাংলাদেশেই সরকারি হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় এ ভাই’রাসে নতুন করে ৪৫ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২৪৩ জন।

এর আগের ২৪ ঘন্টায় মৃ’ত্যু হয় আরও ৫৩ জনের। রেকর্ড ৪ হাজার ৮ জন শনাক্ত হন। এ পর্যন্ত সরকারি হিসেবেই সারা দেশে মৃ’তের সংখ্যা ১ হাজার ৩৮৮ জন। শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৫ হাজার ৫৩৫ জন।

অন্যদিকে শুক্রবারের (১৯ জুন) তথ্য অনুসারে পার্শ্ববর্তী ভা’রতে শেষ ২৪ ঘণ্টায় করো’না শনাক্ত হয়েছে ১৪ হাজার ৫২ জনের। যা দেশটিতে করো’না দেখা দেওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। এদিন সরকারি হিসেবে ভা’রতে মৃ’ত্যু হয়েছে ৩৪৩ জনের। এখন পর্যন্ত সেখানে মোট শনাক্ত ৩ লাখ ৮০ হাজার ৫৩২ জন। মোট মৃ’ত্যু গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৬০২ জনে।

এছাড়া দক্ষিণ এশিয়ার আরেক দেশ পা’কিস্তানও করো’নার হট স্পট হয়ে উঠছে। সেখানে সরকারি হিসেবে এখন পর্যন্ত মা’রা গেছে ৩ হাজার ২২৯ জন। শনাক্ত হয়েছে ১ লাখ ৬৫ হাজার ৬২ জন।

বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার এই পরিস্থিতি প্রসঙ্গে স্বাস্থ্য বিশেজ্ঞরা বলছেন, বাংলাদেশ ও ভা’রত বিশাল জনসংখ্যার দেশ। এ অঞ্চলে জনবসতিও অনেক বেশি ঘনত্বপূর্ণ। এ দুই দেশে একই সঙ্গে সংক্রমণ শুরু হয়। বর্তমানে তা কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের পর্যায়ে। পা’কিস্তানেও সমান তা’লে আ’ক্রান্ত বাড়ছে। তাদের মৃ’ত্যু হারও বেশি দেখা যাচ্ছে। এসার্বিক বাস্তবতায় এ অঞ্চলের পরিস্থিতি যদি নিয়ন্ত্রণে আনা না যায়, তাহলে ভ’য়াবহ পরিস্থিতি তৈরির আশ’ঙ্কা রয়েছে। এটা আরও বিস্তার লাভ করে বি’স্ফোরণ ঘটাতে পারে।

বর্তমান পরিস্থিতি প্রসঙ্গে বাংলাদেশের বিশিষ্ট মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন বিভাগের প্রাক্তন চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক প্রফেসর এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, অনেকে বলেছিল শীতে করো’না বেশী হয়, গরমে কমতে পারে। আবার বাতাসের আর্দ্রতা বেশি হলে কমতে পারে। অনেকেই অনেক কথা বলেছেন। এসব নিয়ে এখনও রিসার্চ চলছে। কিন্তু এ ভাই’রাসের ধরন স’ম্পর্কে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত এখনও নেওয়া সম্ভব হয়নি। আবহাওয়ার ব্যাপারটিই যাই হোক, ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ও এলাকায় এটি বেশি সংক্রমিত হচ্ছে। বাংলাদেশ, ভা’রতসহ দক্ষিণ এশিয়া ঘনবসতিপূর্ণ ও জনসংখ্যা বেশি। আমাদের দেশে মানুষ গাদাগাদি করে থাকে। বাসা-বাড়ি, মেস, বস্তিতে মানুষের দূরত্ব থাকে না। এসব কারণে এ অঞ্চলে এখন সংক্রমণ বেশি। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের মধ্যে না রাখা গেলে আরও ব্যাপক বিস্তার ঘটতে পারে।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এবং হেলথ অ্যান্ড হোপ হাসপাতা’লের চেয়ারম্যান ডা. এমএইচ চৌধুরী লেলিন বলেন, বাংলাদেশ, ভা’রতসহ দক্ষিণ এশিয়ায় একসঙ্গে করো’নার সংক্রমণ শুরু হয়েছে এবং একই রকম করে বাড়ছে। এখন এই এলাকা করো’নার হট স্পট হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে বাংলাদেশ ও ভা’রত। এখানে করো’নার সংক্রমণ ও ভাইরোলজিক্যাল মিল আছে। সব মিলিয়ে এ অঞ্চলের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক অবস্থায়।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 6
    Shares