প্রচ্ছদ আন্তর্জাতিক

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী

25
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী
পড়া যাবে: < 1 minute

বিশ্বব্যাপী ভ’য়াল থাবা বিস্তার করা করো’না মহামা’রির কারনে ক্লান্ত ও বিপর্যস্ত মানবজাতি এখন উন্মুখ হয়ে চেয়ে আছে একটা ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধকের।

আপেক্ষায় আছেন কখন একটা সুখবর দেবেন বিজ্ঞানীরা। এবার তেমনি একটি সুখবর দিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান বিজ্ঞানী ড: সৌম্য স্বামীনাথন।

জানিয়ে দিলেন পরবর্তী বছর শেষের আগেই তৈরি হয়ে যাবে ২০০ কোটি করো’না প্রতিষেধক।

জেনেভা থেকে আজ শুক্রবার তিনি সংবাদ মাধ্যমের উদ্দেশে বলেছেন,’এই মুহুর্তে আমাদের কাছে প্রমাণিত কোনো প্রতিষেধক নেই। তবে আমাদের সৌভাগ্য যে আম’রা এই বছরের শেষেই একজন বা দুজকে সাফল্য পেতে দেখব এই বিষয়ে।’

বিজ্ঞানীরা যদিও মনে করছেন এখনো করো’না লড়াইয়ে কার্যকরী প্রতিষেধক পেতে ১২ থেকে ১৮ মাস সময় লাগবে। গত মাসে গ্লোবাল ফার্মাসিউটিক্যালসের ফিজার জানিয়েছিলেন, অক্টোবরের শেষেই করো’না প্রতিষেধক তৈরি হয়ে যাবে।

এখন সারা বিশ্বে ১০০ টি প্রতিষেধকের উপর বিভিন্ন স্তরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। কিন্তু পাকাপা’কি সুফল নিয়ে করো’নার সঙ্গে লড়াই করবে এমন প্রতিষেধকের খোঁজ এখনো ধোঁয়াশায়। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় নির্মিত প্রতিষেধক আশা দেখাচ্ছে। কিন্তু কবে প্রতিষেধক প্রয়োগে কভিড-১৯ আতঙ্ক থেকে মুক্তি মিলবে তা এখনো অনিশ্চিত।

করো’না মহামা’রি থেকে রক্ষা পেতে মানব জাতি অধির আগ্রহে অ’পেক্ষা করছে। অ’তীতের অনেক ভ’য়াবহ মহামা’রীর মত মানুষের অ’পেক্ষা এবারো হয়ত একদিন শেষ হবে। পৃথিবী থেকে দূর হবে করো’না নামের মা’রণ ভাই’রাস। আবার নতুন সূর্য উঠবে সেই প্রত্যাশায় এখন বিশ্ববাসী।

সূত্র- জি নিউজ।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 12
    Shares