প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

করোনায় বাংলাদেশের ৫ সুখবর

42
করোনায় বাংলাদেশের ৫ সুখবর
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

বাংলাদেশের করো’না সংক্রমণ নিয়ে অনেকে উদ্বিগ্ন, আতঙ্কিত। প্রতিদিন বেড়ে চলেছে করো’না রোগীর সংখ্যা, বাড়ছে মৃ’ত্যুর সংখ্যাও। কিন্তু এই বাস্তবতার পরেও বাংলাদেশের কিছু কিছু সূচক এবং তথ্য-উপাত্ত আশার কথা শোনাচ্ছে।

আর এই কারণে করো’না সংক্রমণ তীব্র হওয়ার পরেও মানুষ উদ্বিগ্ন নয় এবং জীবনযাত্রা থেমে নেই। বরং মানুষ করো’না পরিস্থিতির থেকে অর্থনৈতিক সংকট’কে বেশি প্রকট মনে করছে এবং অর্থনৈতিক সঙ্কট কাটিয়ে ওঠাকেই বড় চ্যালেঞ্জ মনে করছে।

মানুষ করো’নার সঙ্গে বসবাসের এক কৌশল রপ্ত করে ফেলেছে এবং যে কারণে করো’নায় এখনো বিপর্যস্ত হয়নি বাংলাদেশ। করো’নায় বাংলাদেশের যে সুখবরগুলো রয়েছে এবং বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে কারণগুলোতে বাংলাদেশকে করো’না নাস্তানাবুদ করতে পারছে না তাঁর মধ্যে রয়েছে-

নব্বই শতাংশ মানুষ বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছে

বাংলাদেশে করো’না আ’ক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সোয়া লাখ ছাড়িয়ে গেছে। করো’নায় যারা আ’ক্রান্ত হচ্ছে তাঁদের নব্বই শতাংশ রোগী বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন এবং সুস্থ হয়ে যাচ্ছেন। অনেকে কোন চিকিৎসকের কাছেও যাচ্ছেন না, বিভিন্ন গণমাধ্যম, বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্ম বা শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছ থেকে পরাম’র্শ নিয়ে যে চিকিৎসাগুলো নেওয়া দরকার তা নিচ্ছে এবং সুস্থ হয়ে উঠছেন। এর ফলে আস্তে আস্তে করো’নায় অভ্যস্ততা তৈরি হচ্ছে মানুষের মাঝে।

মৃ’ত্যুহার কম

এটা বারবার বলা হচ্ছে যে, বাংলাদেশে করো’নায় মৃ’ত্যুর হার অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় কম। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে মৃ’ত্যুর হার শতকরা ১.৩ শতাংশের কাছাকাছি। যেটা খুব একটা উদ্বেগজনক নয় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আর এই মৃ’ত্যুহার কম হওয়াটাও বাংলাদেশের জন্য সুখবর।

অধিকাংশ জে’লার পরিস্থিতি ভালো

করো’না সংক্রমণ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে এটা যেমন সত্যি, তেমনি এটাও বাস্তবতা যে, বাংলাদেশের ঢাকা, চট্টগ্রাম, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুরসহ কিছু উল্লেখযোগ্য এলাকায় করো’না সংক্রমণ ব্যাপক। তবে অন্য জে’লাগুলোতে করো’না সংক্রমণ অ’পেক্ষাকৃত কম। বিশেষ করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে করো’না পরিস্থিতি ভালো। এর ফলে বাংলাদেশে যেমন কৃষি উৎপাদন ব্যহত হওয়ার সম্ভাবনা কম, তেমনি যে সমস্ত এলাকাগুলোতে চিকিৎসা সুবিধা দেওয়া কঠিন হয়ে পড়বে সেই সমস্ত এলাকাগুলোতে আ’ক্রান্ত কম থাকায় তা দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রতি একটা সুখবর বটে।

গরীব মানুষদের আ’ক্রান্তের হার কম

করো’নায় গরীব মানুষদের জন্য একটি বড় সুখবর হলো, গরীব মানুষরা এখন পর্যন্ত আ’ক্রান্ত কম হচ্ছে, হচ্ছেনা বললেই চলে। বিশেষ করে যারা খেটে-খাওয়া দিনমজুর, বস্তিতে বসবাস করে, কৃষক, শ্রমিক- এদের মধ্যে করো’না সংক্রমণের হার অনেক কম। এটার কারণ নিয়ে গবেষণার তাগিদ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এবিএম আবদুল্লাহ। আইইডিসিআর-এর পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে যে, তাঁরা এই বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করতে আগ্রহী। তবে গবেষণা যাই হোক না কেন বাংলাদেশের গরীব মানুষদের করো’না সংক্রমণের হার কম হওয়াটি আমাদের জন্য একটি সুখবর।

জনপ্রিয় হচ্ছে টেলিমিডিসিন

যেকোন সঙ্কটে সবসময় কিছু সম্ভাবনা বেড়িয়ে আসে। বাংলাদেশে যখন করো’না সংক্রমণ শুরু হয় তখন স্বাস্থ্যগত বিষয়ে একাধিক সঙ্কট শুরু হয়েছিল। করো’না চিকিৎসা নিয়ে যেমন সঙ্কট তৈরি হয়েছিল, তেমনি সঙ্কট তৈরি হয়েছিল আমাদের অন্যান্য চিকিৎসা নিয়েও। সরকারি-বেসরকারি হাসপাতা’লে চিকিৎসক আসা প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। বন্ধ হয়ে গিয়েছিল জরুরী সেবা প্রদান পর্যন্ত। আর এরকম পরিস্থিতিতে ডিজিটাল বাংলাদেশের কল্যাণে টেলিমেডিসিন সেবা চালু হয় এবং ক্রমশ এখন তা জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। করো’নাকালে বাংলাদেশের জন্য অন্যতম সুখবর হচ্ছে যে, টেলিমেডিসিনের উপর নির্ভরতা বাড়ছে এবং এই নির্ভরতা বাংলাদেশের চিকিৎসা ক্ষেত্রে একটি নতুন যুগের সূচনা করতে যাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আর এই সমস্ত সুখবরের কারণে করো’না যদি বাংলাদেশে আরো কিছুদিন থাকে তাহলেও তা বাংলাদেশকে চোখ রাঙাতে পারবে না। বরং মানুষ করো’নাকে বশীভূত করে জীবন এবং জীবিকা চালাবে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।