প্রচ্ছদ বাংলাদেশ

যে ছোট্ট কাজ মাস্ককে অনিরাপদ করে তুলছে!

42
যে ছোট্ট কাজ মাস্ককে অনিরাপদ করে তুলছে!
পড়া যাবে: < 1 minute

করো’না ভা’ই’রাস ম’হামা’রিতে নি’রাপদ থাকার নির্দে’শিকায় সবচেয়ে বেশি বলা হয়েছে মাস্ক ব্যবহার ও হাত ধোয়ার কথা। বাইরে গেলে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার ও সংক্র’মণ ের ঝুঁ’কি রো’ধ করার অনেকগুলো উপায়ের মধ্যে অন্যতম হলো মাস্ক ব্যবহার করা।

তবে বাইরে তীব্র গরমে সারাক্ষণ মাস্ক পরে থাকাও বেশ ক’ষ্টের। অনেকসময় ঘামে মাস্ক ভিজে যায় এবং পরতে অস্বস্তি হয়। তারপরও যদি আপনি এটি সঠিকভাবে না পরেন তাহলে সুর’ক্ষার বদলে ব্যবহৃত মাস্ক অনি’রাপদ হয়ে উঠতে পারে।

আপনি যদি মাস্ক পরে ঘন ঘন কাঁশি দেন তাহলে মাস্কের কার্যকারীতা কমে যায়। কারণ কাঁশি দিলে মাস্ক ভেদ করে ড্রপলেট বাইরে বেরিয়ে যায়। এমনকি তা তিন ফুট দূ’রত্ব অ’তিক্রম ক’রতে পারে। আপনি যতই ভালো মাস্ক ব্যবহার করেন না কেন কাঁশি দিলে তার কার্যকারীতা অনেকটাই কমে যায় এবং এর ড্রপলেট বাইরে ছ’ড়িয়ে প’ড়ে।

সাইপ্রাসের নিকোসিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে দেখেছেন যে ভালো মাস্ক পরে থাকলেও কাঁশি দিলে ড্রপলেট নির্দিষ্ট দূ’রত্ব অ’তিক্রম ক’রতে পারে। এটি মূলত বায়ুচা’পের কারণে হয়ে থাকে। কাঁশি দিলে এই চা’প অনেকটা বৃ’দ্ধি পায়। যদিও এই বিষয়টি নিয়ে আরও বৈজ্ঞানিক গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

তবে সুরক্ষিত থাকতে অবশ্যই মাস্ক করা জ’রুরি। আর মাস্ক পরা অব’স্থায় কাঁশি দিলে একটু দূ’রত্ব বজায় রেখে তা দেয়া উচিত। যাতে করে কাঁশির ড্রপলেটগুলো অন্যকে সংক্র’মিত না ক’রতে পারে। এছাড়া কেউ কাশি দিলে তার মুখে মাস্ক থাকুক বা না থাকুক পাশে থাকা লোকদের দূ’রে সরে যাওয়া উচিত।

বাজারে বিভিন্ন ধ’রনের মাস্ক রয়েছে। যদিও এন৯৫ মাস্কে সর্বো’চ্চ সুর’ক্ষা ব্যব’স্থা রয়েছে। তারপরও কাপ’ড়ের তৈরি মাস্ক বা সার্জাকাল মাস্কও কাজ করে। আপনি কোন মাস্কে আরামবোধ করেন সেটাই গু’রুত্ব পূর্ণ। তবে যে মাস্কই পরেন না কেন তার যত্ন নেয়া এবং সঠিক ব্যবহার নি’শ্চিত ক’রতে হবে।

করো’না থেকে বাঁচতে মাস্ক ব্যবহার ছাড়াও সামাজিক দূ’রত্ব বজায় রাখা, হাত ধোয়া বা স্যানিটাইজ করা এবং জমায়েত এড়িয়ে চলা অ’ত্যন্ত জ’রুরি।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।