প্রচ্ছদ বাংলাদেশ উপজেলা

ঘরে সিঁদ কেটেছে কে মালিক না চোর ?

61
ঘরে সিঁদ কেটেছে কে মালিক না চোর ?
ছবি : সংগৃহীত
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

ঘরে সিঁদ কেটেছে কে মালিক না চোর এমন এক রহস্য জনক প্রশ্নের উত্তর নিয়ে ধুম্রজালে পড়েছে প্রতিবেশীরা। ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের উচাখিলা ইউনিয়নের উজানচর গ্রামে। সোমবার দিবাগত রাতে উজানচর গ্রামের শামছুল ইসলামের ছেলে সুমনের ঘরে সিঁদ কেটে চুরি হয়েছে বলে অভিযোগ তুলা হয়। দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসা প্রতিপক্ষ মজিবুর হমান ও আলাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ করা হয়।

সুমন মিয়ার বড় ভাই অঞ্জন সাংবাদিকদের জানান, তার ভাইয়ের ঘরে সিঁদ কেটে চুরি হয়েছে। চারজনের সংঘবদ্ধ একটি চোরের দল ঘরে ঢুকে চরি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় তিনি মজিবুর রহমান ও আলাল উদ্দিনকে চিনতে পেরেছেন। ঘর থেকে নগদ ৭০ হাজার টাকা একটি স্বর্ণের চেইন ও ৪টি মোবাইল চুরি হয়েছে। এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় সুমন একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

আরও পড়ুন:  অফিসে চেয়ারে বসে ই’য়াবা সে’বনকা’রী ভূমি কর্মকর্তা সমীর কুমারকে প্রত্যাহার

কিন্তু সুমন ও তার ভাই অঞ্জনের দাবিটি শুধু প্রতিপক্ষ নয় পুরো এলাকাবাসী নাকচ করে। এ বিষয়ে মজিবুর রহমান জানান, তিনি শ্বসকষ্টের রোগী। তিন দিন ধরে বিছানায় পড়ে আছেন অথচ তাকে সিঁদ কেটে চুরি করার মিথ্যা অভিযোগ করে ফাঁসাতে চাইছেন। কারো ঘরে চুরি হলে পাড়া প্রতিবেশীরা আগে শুনার কথা কিন্তু এখানে সাংবাদিকরা আগে শুনে ঘটনাস্থলে এসেছেন আর সাংবাদিকদের কাছ থেকে এলাকাবাসী চুরির ঘটনাটি জানতে পেরেছেন।

আলাল উদ্দিন বলেন, সুমন নিজ ঘরে নিজেই সিঁদ কেটে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের ফঁসানোর চেষ্টা করছে। কিছুদিন আগে জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে উভয় পক্ষে সংঘর্ষে তাদের পক্ষের রাজু নামের এক ছেলে এখনো হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তার একটি হাত কেটে ফেলা হয়েছে। রামদায়ের কুপে বুকে মারাত্মক ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। ওই মামলায় শামছুল হকের দুই ছেলে শাহীন আলম (৪০) ও কাজল (৩৫) বর্তমানে জেল হাজতে আছে। তারা ওই মামলায় সুবিধা করতে না পেরে নিজ ঘরে সিঁদ কেটে আমাদের হয়রানী করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

আরও পড়ুন:  ময়মনসিংহের তারাকান্দায় ত্রিমূখী সংঘর্ষে দুইজন নিহত

উভয় পক্ষের বক্তব্য নিতে আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থলে গেলে সাংবাদিকদের উপস্থিতি দেখে অর্ধশতাধিক লোক  জড়ো হয়। এমন সময় সুমনের ঘরে সিঁদ কেটে চুরির ঘটনাটির বিষয়ে জানতে চাইলে উপস্থিত লোকজন জানান, সুমনের ঘরে চুরি হয়েছে এমন ঘটনা তার শুনেননি। এমনভাবে সিঁদ কেটে ঘরে চুরি হওয়ার ঘটনা দীর্ঘদিন পর এটিই এখন সাংবাদিকদের কাছ থেকে শুনছেন। বিষয়টি তাদের কাছে আশ্চর্য লেগেছে। তারা সাংবাদিদের কাছে প্রশ্ন তুলেন, আসলে ঘরে সিঁদ কেটেছে কে মালিক না চোর?

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি