প্রচ্ছদ বিশ্ব সংবাদ

নতুন আইনে ফুঁসছে হংকং

14
নতুন আইনে ফুঁসছে হংকং

পড়া যাবে: < 1 minute

চীনের শাসন থেকে হংকংয়ের স্বাধীনতা চাওয়া নিয়ে সামান্য কোনো ইঙ্গিত দিলেও নতুন নিরাপত্তা আইনে গ্রে’ফতার হতে হবে।

কোনো ভিন্ন মত সহ্য করা হবে না-এটি বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে হংকংকে জানিয়ে দেওয়ার পরই প্রতিবাদে ফেটে পড়ে পৃথিবীর অন্যতম উজ্জ্বল বাণিজ্যিক এলাকা। হাতে ঢাল ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে বিশাল পু’লিশ বাহিনী প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় নেমে পড়ে।

প্রতিবাদীরা প্রথমে সংখ্যায় কম থাকলেও সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পথে নেমে আসে হাজারো মানুষ। হংকংয়ের নতুন নিরাপত্তা আইনে গ্রে’ফতারও শুরু হয়ে গেছে। গ্রে’ফতার হওয়া প্রতিবাদীদের মধ্যে রয়েছে ১৫ বছরের এক কি’শোরী, যার অ’প’রাধ হিসেবে বলা হয়েছে, সে হংকংয়ের স্বাধীনতা লেখা একটি পতাকা নাড়াচ্ছিল। প্রতিবাদীদের ছত্রভঙ্গ করতে পু’লিশ জলকামান, কাঁদুনে গ্যাস ও গোলম’রিচের ¯েপ্র ব্যবহার করে।

আরও পড়ুন:  সৌদিতে বাংলাদেশ বিমানকে ১ কোটি টাকা জরিমানা

প্রথম দিকে রাস্তায় নেমে আসা প্রতিবাদীদের সংখ্যা পু’লিশের তুলনায় অনেকটাই কম থাকলেও পরে কয়েক হাজার মানুষ কাঁদুনে গ্যাসকে উপেক্ষা করে পথে নেমে পড়ে। পু’লিশ জানিয়েছে, ১০ জনকে নতুন নিরাপত্তা আইনে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। এছাড়া বেআইনি জমায়েত, অ’স্ত্র বহন ইত্যাদি বিভিন্ন ধারায় আরও ৩৭০ জনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।

এ অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত হংকংয়ের প্রায় ৩০ লাখ বাসিন্দাকে ব্রিটেনে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী জনসন। তিনি বুধবার পার্লামেন্টে জানিয়েছেন, প্রায় তিন লাখ ৫০ হাজার ব্রিটিশ ন্যাশনাল পাসপোর্টধারীসহ বাকি ২৬ লাখ হংকংয়ের নাগরিক পর্যায়ক্রমে ব্রিটেনে এসে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পাবেন। চীনের নতুন এই আইন স্পষ্টতই দুই দেশের আইনি চুক্তির খেলাপ করেছে।

সেই চুক্তি অনুযায়ী, ১৯৯৭ সালে চীনের হাতে হংকংয়ের হস্তান্তরের পর ৫০ বছর পর্যন্ত নির্দিষ্ট কয়েকটি ক্ষেত্রে হংকং এবং সেখানকার বাসিন্দাদের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে পারবে না বেইজিং।

আরও পড়ুন:  ৭২ শতাংশ পার্টিক্যাল ফিল্টার সক্ষম ফেস মাস্ক আনল ‘সারা’

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন banglanewsmagazine আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

  • 4
    Shares