প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

ডিভোর্সের পর স্ত্রী’র বিয়ে, তবুও শারীরিক স’ম্পর্ক করতে চাইতেন!

68
ডিভোর্সের পর স্ত্রী'র বিয়ে, তবুও শারীরিক স'ম্পর্ক করতে চাইতেন!
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের মে’য়ে সায়মা আক্তার (২০)। ২০১২ সালে পারিবারিকভাবেই বিয়ে হয়েছিল একই জে’লার ইয়াদ আলী ও জামেলা বেগমের ছে’লে শাহআলম (৩২)-এর সঙ্গে।

বিয়ের একেবারে প্রথম’দিকে তাদের সংসার সুখেরই ছিল। ঘর আলো করে পরপর তাদের দুটি সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু সায়মা ও শাহআলমের সংসারে সেই সুখ বেশি দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। নানা কারণে তাদের মধ্যে বনিবনা হতো না। প্রায়ই ঝগড়াঝাটি লেগে থাকতো। সায়মা’ও বুঝতে পারে তার স্বামী নে’শাগ্রস্ত।

আর নে’শাগ্রস্ত স্বামীর সঙ্গে তার সংসার করাটা কঠিন হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সায়মা তার প্রথম স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে ঢাকা এসে আবার বিয়ে করে। শাহআলম সেটি মেনে নিতে পারেনি। সাবেক স্ত্রী’র অন্যত্র বিয়ে হলেও শাহআলম তার সন্তানদের কাছে যেতে চাইতো। স্ত্রী’র সঙ্গে ফের শারীরিক স’ম্পর্ক ও টাকা চাইতো।

কিন্তু সায়মা তাকে বাধা দিতো। সন্তানের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে তার বর্তমান স্বামী শাহআলমকে মা’রধর করতো। এসব ক্ষোভ থেকেই শাহআলম সায়মাকে ছু’রিকাঘাত করে হ’ত্যা করে।

সায়মা হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনায় তার ভাই ফারুক (৩০) বাদী হয়ে সবুজবাগ থা’নায় একটি মা’মলা করেন। মা’মলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, বর্তমান স্বামীকে নিয়ে সবুজবাগের আহাম্ম’দবাগের মু’সকান নজরুল প্যালেসের বিপরীতের একটি বস্তিতে তার বোন থাকতো। তার প্রথম স্বামী শাহআলম সেখানে গিয়ে প্রায়ই তাকে বির’ক্ত করতো। তার বর্তমান স্বামী একাধিকবার বির’ক্ত না করার অনুরোধ করলেও শাহআলম সেটি শুনেনি।

পরে ১৯শে জুন আহাম্ম’দবাগের ৩৬/৩ বাসার পাশের সরু গলিতে শাহআলম অ’জ্ঞাতনামা ২/৩ জন সায়মা’র পেটে চাকু দিয়ে উপর্যুপরি আ’ঘাত করে জ’খম করে। এসময় সায়মা’র বর্তমান স্বামী সাগর মিয়া তার চি’ৎকার শুনে ঘটনাস্থলে এসে তাকে উ’দ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে ভর্তি করে। সেখানে ৯ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় সায়মা মৃ’ত্যুবরণ করেন। ঘটনার পরপরই পালিয়ে যায় শাহআলম। পরে ডিএমপি’র সবুজবাগ জোনের সিনিয়র সহকারী পু’লিশ কমিশনার রাশেদ হাসানের নেতৃত্বে এই মা’মলার ত’দন্তে নামে সবুজবাগ থা’না পু’লিশ। গতকাল সবুজবাগ থা’না পু’লিশ এই মা’মলার মূল ঘা’তক ও সায়মা’র স্বামী শাহআলমকে কেরানীগঞ্জ এলাকা থেকে গ্রে’প্তার করেছে।

গ্রে’প্তারের পর শাহআলম পু’লিশকে জানিয়েছে, সায়মাকে বিয়ে করার পর সে তাকে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে চলে যায়। সংসার চলাকালীন সময়ে সায়মা প্রায়ই ঢাকায় চলে আসতো। এভাবে আসা-যাওয়া করতে করতে সে মা’দক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। আর মা’দক ব্যবসা করতে করতে তার সঙ্গে সাগর মিয়া নামের এক যুবকের পরিচয় হয়। পরবর্তীতে তাদের মধ্যে প্রে’মের স’ম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে সাত মাস আগে তারা দুজন বিয়ে করে। সায়মা তার দুই সন্তানকে নিয়ে বর্তমান স্বামীর সঙ্গে সবুজবাগের ওই ঠিকানায় থাকতো। শাহআলম তখন মাঝেমধ্যেই সন্তান ও স্ত্রী’র সঙ্গে সাক্ষাৎ করার জন্য ওই এলাকায় যেত এবং বিভিন্ন অজুহাতে টাকা চাইতো। কিন্তু সায়মা নিজেও দেখা করতো না আবার সন্তানদের দেখা করতে দিতো না।

বরং শাহআলম ওই এলাকায় গেলে সায়মা’র বর্তমান স্বামী তাকে মা’রধর করতো। পু’লিশকে শাহআলম আরো জানিয়েছে, এসব বিষয় মিটমাট করার জন্য এলাকায়ও সে বিভিন্ন জনের কাছে অ’ভিযোগ করেছে। এ নিয়ে সালিশও হয়েছে। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। এমনকি তাকে ছেড়ে সন্তানদের নিয়ে সায়মা ঢাকা আসার পরও বিভিন্ন মাধ্যমে সে সায়মা’র সঙ্গে মেলামেশা ও মিটমাটের চেষ্টা করেছে। নানা চেষ্টা করে সে ব্যর্থ হওয়ার পর তার মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সে সায়মাকে হ’ত্যার পরিকল্পনা করে। মিশন বাস্তবায়ন করতে সে ২০০ টাকা দিয়ে একটা ছু’রি কিনে। সেই ছু’রি দিয়ে সায়মা’র বাসার পাশে গিয়ে আ’ঘাত করে পালিয়ে যায়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পু’লিশের সবুজবাগ জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার রাশেদ হাসান মানবজমিনকে বলেন, মূলত সায়মা ও তার বর্তমান স্বামীর প্রতি শাহআলমের একটা ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল। বিশেষ করে সায়মা সন্তানদের নিয়ে তাকে ডিভোর্স দিয়ে অন্যত্র বিয়ে করা সে মেনে নিতে পারেনি। ডিভোর্সের পরও সে সায়মা’র সঙ্গে শারীরিক স’ম্পর্ক ও সন্তানদের কাছে নিতে চাইতো। মাঝেমধ্যে টাকা চাইলে সায়মা দিতো না। এলাকায় গিয়ে দেখা করতে চাইলে সায়মা’র বর্তমান স্বামীর মা’রধরেরও শিকার হয়। এজন্য তারমধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এ জন্য পূর্ব পরিকল্পনামাফিক সায়মাকে খু’ন করে পালিয়ে যায়।

পরে প্রযু’ক্তির সহযোগিতায় আম’রা তাকে গ্রে’প্তার করতে সক্ষম হই। এই মা’মলায় এখনো শাহআলমকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। হ’ত্যার পেছনে অন্য কোনো কারণ আছে কিনা সেটি খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, এই মা’মলার ত’দন্ত ও আ’সামিকে গ্রে’প্তার করার জন্য ডিএমপি’র ইন্টিলিজেন্স অ্যান্ড এনালাইসিস ডিভিশনের (আইএডি) দারুণ সহযোগিতা পেয়েছি। তাই ডিএমপি’র এই বিভাগের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 27
    Shares