প্রচ্ছদ অপরাধ

চাচির সঙ্গে প্রেমের পর ভাতিজার বিয়ে, অতপর ভ’য়ঙ্কর পরিণতি!

55
চাচির সঙ্গে প্রেমের পর ভাতিজার বিয়ে, অতপর ভ’য়ঙ্কর পরিণতি!
পড়া যাবে: < 1 minute

একবাড়িতে থাকার কারণেই চাচির সাথে প্রেম হয়ে যায় ৩২ বছর বয়সী যুবক গৌতমের। প্রেম মানে না কোনো ব্যখ্যা, কোনো শর্ত কিংবা সূত্র। এক সময় বিষয়টি পরিবার জানতে পারে, কিন্তু চাচির সঙ্গে ভাসুরের ছেলের প্রেম কীভাবে মানবে পরিবার।

স্বাভাবিকভাবেই পরিবার মেনে নেয়নি। বাড়িতে শুরু হয় অশান্তি। অবশেষে চাচি ও ভাতিজা এক দঁড়িতে আত্ম’হ’ত্যা করে। তবে তার আগে তারা বিয়ে করে সিঁদুর পরিয়ে। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের পশ্চিম মেদিনীপুরের মালবাঁধি জঙ্গল সংলগ্ন গড়বেড়িয়া এলাকায়।

ওই গ্রামের বাসিন্দা মমতা দাস। বছর কয়েক আগে তাঁর বিয়ে হয় আনন্দপুরে। সন্তানও রয়েছে ওই বধূর। সুখেই চলছিল সংসার। কিন্তু আচমকাই ভাতিজা গৌতমের প্রতি দু’র্ব’লতা তৈরি হয় মমতার। চাচির প্রতি আকৃষ্ট হন যুবকও। একবাড়িতে থেকেই তাঁদের মধ্যে শুরু হয় চিঠির আদান-প্রদান।

আরও পড়ুন:  অন্তঃসত্ত্বা মাদরাসাছাত্রী, গ্রে’প্তার অভিযুক্ত ধ’র্ষ’ক

এদিকে গভীরতা বাড়তে থাকে সম্পর্কের। প্রথমে কেউ না বুঝলেও, একটা সময়ের পর তাঁদের ব্যক্তিগত সম্পর্ক প্রকাশ্যে চলে আসে। তখনই বাধা হয়ে দাঁড়ায় পরিবার, সমাজ। শুরু হয় অশান্তি। এরপরই রাগ করে বাপের বাড়িতে চলে যান মমতা। মঙ্গলবারও বাপের বাড়িতে ছিলেন ওই বধূ।

সম্প্রতি আনন্দপুর থেকে গৌতম দাসও চলে যায় প্রেমিকা তথা চাচির সঙ্গে দেখা করতে। দু’জনে একটি সাইকেলে ঘোরাঘুরির পর ঢুকে যায় মালবাঁধির জ’ঙ্গলে। সেখানেই চাচিকে বিয়ে করে গৌতম। এরপরই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হন নবদম্পতি।

পরে স্থানীয়রা বিষয়টি দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। তাঁরাই লা’শ দুটি উ’দ্ধা’র করে। জানা গেছে,লাশের কাছ থেকে একাধিক প্রেমপত্র এবং কিছু টাকা পয়সা পাওয়া গেছে। পুলিশের ধারণা, আত্ম’হ’ত্যা করার উদ্দেশ্যেই তাঁরা নতুন দড়ি নিয়ে জঙ্গলে ঢুকেছিল।

আরও পড়ুন:  ছাত্রীকে উ’ত্যক্ত করে গণপি’টু’নির শি’কার প্রধান শিক্ষক, পুলিশে সোপর্দ

বাংলা ম্যাগাজিন ডেস্ক

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 6
    Shares