প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিভাগ

৭০ টাকার ইনজেকশন আড়াই হাজারে বিক্রির অভিযোগে চিকিৎসক গ্রেপ্তার

13
৭০ টাকার ইনজেকশন আড়াই হাজারে বিক্রির অভিযোগে চিকিৎসক গ্রেপ্তার
পড়া যাবে: < 1 minute

বাংলা ম্যাগাজিন ডেস্ক : কমদামের ওষুধ বেশি দামে রোগীদের কিনতে বাধ্য করার অভিযোগে এক চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম নগরের ইপিজেড মোড়ের সেইফল্যান্ড ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড রিসার্স সেন্টার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেফতার ডা. রবিউল আওয়াল বগুড়া জেলার কাহালু উপজেলার পাইকড় ইউনিয়নের উচল বাড়িয়া গ্রামের মো. আহম্মেদ আলী মন্ডলের ছেলে। নগরের বন্দর থানার পশ্চিম নিমতলা এলাকায় থাকেন তিনি। তার চেম্বার থেকে বিভিন্ন ধরনের ৭৯টি ইনজেকশন উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক এএসপি কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ বলেন, ‘রবিউল আওয়াল একজন অর্থোপেডিক বিষয়ের চিকিৎসক। রোগীদের অস্বাভাবিক বাড়তি দামে ওষুধ কিনতে বাধ্য করার অভিযোগ পেয়ে তার চেম্বারে অভিযান চালানো হয়। সেখানে একজন রোগীকে তার কাছ থেকে আড়াই হাজার টাকা দামে একটি ইনজেকশন কিনতে দেখি। বাজারমূল্য যাচাই করে দেখি, এর দাম মাত্র ৭০ টাকা। বাড়তি দাম নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি আমাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। পরে আমরা তাকে গ্রেপ্তার করি।’

আরও পড়ুন:  নিমসার থেকে বরুড়া যোগাযোগের অন্যতম সড়কটির বেহালদশায় জনদুর্ভোগ চরমে

র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাহমুদুল হাসান মামুন বলেন, ‘ডা. রবিউল আওয়াল দীর্ঘদিন ধরে তার কাছে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের স্বল্প মূল্যের ইনজেকশন অস্বাভাবিক মূল্যে তার কাছ থেকে কিনতে বাধ্য করে আসছিলেন। বাহির থেকে ইনজেকশন রোগীদের কিনতে দেন না তিনি।’

ডা. রবিউল বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। প্রাইভেট প্র্যাকটিসের পাশাপাশি তিনি চট্টগ্রাম বন্দর হাসপাতালের অধীনে আউটসোর্সিংয়ের ভিত্তিতে নিয়োগ পেয়ে ‘চট্টগ্রাম বন্দর শ্রমিক সেবাকেন্দ্রে’ কর্মরত আছেন বলে জানিয়েছে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে ইপিজেড থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:  শেষ ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রাম বিভাগে করোনায় ৩ জনের মৃত্যু

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।