প্রচ্ছদ জানা অজানা

প্রয়োজন শেষে অন্যদের ছুড়ে ফেলে যে পাঁচ রাশির মানুষ

29
প্রয়োজন শেষে অন্যদের ছুড়ে ফেলে যে পাঁচ রাশির মানুষ
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

লাইফস্টাইল ডেস্ক : দুনিয়ায় স্বার্থপর মানুষদের সংখ্যা যে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু ভয়টা যেখানে, সেটা হল এমন মানুষদের ফাঁদে পরলে কিন্তু বেজায় বিপদ! কিন্তু কোন মানুষটা স্বার্থপর, আর কোন জন সোনার মনের, তা তো আর খালি চোখে দেখে বোঝা সম্ভব নয়। আসলে কে কেমন মানুষ তা এক ঝলক দেখা বোঝা সম্ভব নয় ঠিকই যেমন কর্কট রাশির কথাই ধরুন না। এই রাশির জাতক-জাতিকারা বেজায় ইমোশমাল প্রকৃতির হয়ে থাকেন। একথায় মনের মানুষ বলতে যাকে বোঝায়, এরা একেবারে তেমনই হয়ে থাকেন। অন্যদিকে কুম্ভরাশির জাতক-জাতিকারা হন বেজায় স্বার্থপর গোছের। তাই তো এদের থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে। তবে এখানেই শেষ নয়, এই প্রবন্ধে সেই সব রাশির উপর আলোকপাত করার চেষ্টা করা হল, যারা স্বার্থপর এবং নিজের কথা ছাড়া কারোর কথাই ভাবেন না।

মেষ রাশি

এই রাশির জাতক-জাতিকাদের মধ্যে মেষের স্বভাব ঠিক যেমন হয়, তেমন লক্ষণই পরিলক্ষিত হয়ে থাকে। এরা নিজেরা যা ঠিক বোঝেন, তাই করেন, পাছে ক্ষতি হয়ে যাক, তাও অন্যের কথা শুনতে এরা চান না। নিজেকে ছাড়া অন্য কারোর প্রতি সময় নষ্ট করেন না। বিশেষ করে যাদের কাছ থেকে এরা বিশেষ সুবিধা না পায়। তাই তো এদের জীবনসঙ্গীদের বেজায় কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। তবে একটা ভাল জিনিস এদের মধ্যে লক্ষ করা যায়। তা হল, যতই কঠিন সময় আসুক না কেন, এরা সহজে ভেঙে পরেন না। নিজের বিশ্বাসকে পুঁজি বানিয়ে সামনে এগিয়ে চলেন। তাই তো হাজারো কঠিন পরিস্থিতির পরেও সফলতা একদিন না একদিন এদের সঙ্গী হয়ই।

আরও পড়ুন:  যে রোগগুলো থাকলে করোনা‌য় মৃত্যুর আশঙ্কা

বৃষ রাশি

এরা শুধুই নিজের জন্য বাঁচেন। কিভাবে নিজেকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে হয়, সে বিষয়ে এদের স্বষ্ট ধারণা থাকে। তাই তো এরা না ভাল বন্ধু হন, না ভাল জীবনসঙ্গী হতে পারেন। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে এদের জুড়ি মেলা ভার। আর এমনটা কেন হবে নাই বা বলুন। যারা সারাক্ষণ নিজের কথা ভেবে চলেছেন, তারা পারিবারিক জীবনে না হলেও কর্মজীবনে যে সফলতার শৃঙ্গ চরবেন, সে বিষয়ে তো কোনও সন্দেহ থাকার কথা নয়। তাই তো বলি বন্ধু মিথুন রাশির জাতক-জাতিকাদের থেকে যদি কাজ হাসিল করতে হয়, তাহলে এদের বোঝাতে হবে যে আপনার সঙ্গে থাকলে এদের ফায়দা আছে। তবেই কিন্তু এরা আপনার সঙ্গ দেবেন, নচেৎ কিন্তু ফিরেও তাকাবে না।

তুলা রাশি

এরা বেজায় স্বাধীনচেতা হন। কেউ এদের নিয়ন্ত্রণ করবে, এমনটা এরা একেবারেই পছন্দ করেন না। তাই তো ভিড়ের থেকে দূরে থাকতেই এমন মানুষেরা বেশি পছন্দ করে থাকেন। আরেকটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য এদের চরিত্রে পরিলক্ষিত হয়, তা হল এরা কাউকেই নিজের মনের কথা জানাতে চান না। তাই তো এদের বন্ধু সংখ্যা যেমন কম হয়, তেমনি কাউকে ভালবাসার আগেও এরা হাজার বার সে সম্পর্কে ভেবে থাকেন। শুধু তাই নয়, কন্যা রাশির জাতক-জাতিকারা সারাক্ষণ নিজেকে নিয়ে মজে থাকেন, তাই তো অন্যের কথা ভাবার সময় এদের হাতে থাকে না বললেই চলে!

বৃশ্চিক রাশি

নিজের কথার বাইরে এই রাশির জাতিক-জাতিকারা আর কারও কথায় কান দিতে চান না। নিজে যেটা ভাল মনে করেন, সেটাই শুধু করেন। শুধু তাই নয়, কারও মতামত তার সামনেই উপেক্ষা করে চলে যাওয়ার আর্ট এরা জন্ম মুহূর্তে থেকে এটা অভ্যাস করে নেন। তাই তো বাকিদের সঙ্গে কুম্ভ রাশির জাকতদের খুব একটা বন্ধুত্ব হয় না। বলতে পারেন অনেকটা এই উপেক্ষা করার মানসিতকতার করণেই এরা ভিড় এড়িয়ে চলেন। সহজ কথায় যদি বলতে হয়, তাহলে এরা বেজায় একালসেরে ও একগুয়ে । নিজের জগতে, নিজের মতো করে থাকতেই এমন মানুষেরা বেশি পছন্দ করে থাকেন। তাই তো বলি বন্ধুরা, আপনার চেনা সার্কেলে যদি কুম্ভ রাশির কেউ থাকেন, তাহলে তাকে ভুলেও কখনও কোনও উপদেশ দিতে যাবেন না যেন কখনও!

আরও পড়ুন:  শুধুমাত্র টাকার অভাবেই মালয়েশিয়ায় দাফন এই প্রবাসী বাংলাদেশির

কুম্ভ রাশি

এই রাশির জাতকরা একটু অহঙ্কারী প্রকৃতির হয়ে থাকে, সেইসঙ্গে অন্যের কী করে ক্ষতি করা যায় সেই বিষয়েও বুদ্ধি চালায়। সেই সঙ্গে এরা একটু ক্ষ্যাপাটে প্রকৃতিরও হয়ে থাকেন। মীন -এই রাশির জাতকরা একটু হিংসুটে এবং অপরের জিনিসের প্রতি আকর্ষণ অনুভব করে। এরা শুধুই নিজের জন্য বাঁচেন। কিভাবে নিজেকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে হয়, সে বিষয়ে এদের স্বষ্ট ধারণা থাকে। তাই তো এরা না ভাল বন্ধু হন, না ভাল জীবনসঙ্গী হতে পারেন। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে এদের জুড়ি মেলা ভার। আর এমনটা কেন হবে নাই বা বলুন। যারা সারাক্ষণ নিজের কথা ভেবে চলেছেন, তারা পারিবারিক জীবনে না হলেও কর্মজীবনে যে সফলতার শৃঙ্গ চড়বেন, সে বিষয়ে তো কোনও সন্দেহ থাকার কথা নয়।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 6
    Shares