প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি

ফজলুল হক মিলনের ব্যক্তিক রাজনীতির কারনে ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে কালীগঞ্জ বিএনপি। 

16
ফজলুল হক মিলনের ব্যক্তিক রাজনীতির কারনে ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে কালীগঞ্জ বিএনপি। 
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

ফজলুল হক মিলনের ব্যক্তিক রাজনীতির কারনে ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে কালীগঞ্জ বিএনপি। 

ব্যক্তিক রাজনীতির কাছে !! সমষ্টিক রাজনীতির পরাজয় !!বিএনপি’র ভবিষ্যত রাজনীতি ধ্বংসের বিধ্বংসী কামান !!ফেসবুকে গত কয়েক দিন যাবত, গাজীপুর ও কালিগন্জের বিএনপি’র রাজনীতির সংবাদ গুলো আমার দৃষ্টিতে যখন বারবার উপনীত হচ্ছিল, তখন প্রথমে ভেবেছিলাম, গাজীপুর বিএনপি’র করোনা ভাইরাসের এই রাজনীতিতে আমি বরং মুখে “রাজনৈতিক মাস্ক” পড়েই থাকি, কারন এই বিষয়টি আমার রাজনীতির অংশ নয়।কিন্তু ক্রমাগত ভাবে আমার জাগ্রত বিবেক আমার প্রকৃত আবেগকে যখন নাড়া দিতে লাগল, তখন ভাবলাম, এই বিষয়ে কথা বলা, সেই সত্তর দশকে আমার হাফপ্যান্ট পরিহিত জীবনের শৈশবে এক জিয়াউর রহমানের প্রতি ভালবাসা থেকে শুরু করে, আজ প্রায় তিন যুগেরও বেশী সময় ধরে তাঁরই হাতে গড়া দল বিএনপি’র রাজনীতিতে শত প্রতিকূলতা উপেক্ষা করেও সম্পৃক্ত থাকার ভিত্তিতে, গাজীপুরের বিএনপি’র রাজনীতির বিষয়ে কথা বলা আমার অর্জিত অধিকার এবং বিষয়টি সার্বজননীন।

”সার্বজনীন” বললাম এই জন্য যে, যে বা যাঁরাই প্রকৃত অর্থে জিয়াউর রহমানকে কেন্দ্র করে বিএনপি’র প্রতি মমত্বশীল হয়ে রাজনীতি করবে, তাঁরা যেখানেই বিএনপি’র যৎসামান্য ক্ষতির লেশ মাত্রও খুঁজে পাবে, সেখানেই তাঁরা সাধ্যমত প্রতিবাদ করবে।সুতরাং আমার লেখার বিষয়টি কোনক্রমেই অনধিকারচর্চা না হয়ে বরং প্রাসঙ্গিক, যৌক্তিক, সময় ভিত্তিক এবং দলীয় বৃহৎ স্বার্থ সম্বলিত বিষয় হিসেবেই পরিগনিত হবে।গাজীপুরের দুই সফল সাবেক ছাত্রনেতাদের মধ্যে জনাব মাসুম আশরাফীকে আমি ফেসবুক ব্যতিরকে যথাযথ না চিনলেও, শ্রদ্ধেয় মনির হোসেনকে চিনি এবং জানি দীর্ঘ সময় ধরে। কারন আমি ও মনির ভাই ছিলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কবি জসিম উদ্দীন হলের পাশাপাশি রুমের আবাসিক ছাত্র।সুতরাং মনির ভাইয়ের মেধা, প্রজ্ঞা, পরিশ্রম এবং দলীয় ধ্যান-ধারনার বিষয় গুলো আমার অনেক বেশী রব্দ এবং বাস্তব স্বাক্ষীর নিরপেক্ষ স্বাক্ষ্য। তবে মাসুম আশরাফীর বিষয়ে আমার ব্যক্তিগত ধারনা মনির ভাইয়ের মত না হলেও, ফেসবুকের পাতায় তাঁর অতীত রাজনীতির যে সত্য স্মৃতি বারবার আমার চোখে উপনীত হয়, তাতে মনে হয়, তিনিও মেধা, প্রজ্ঞা, পরিশ্রম এবং দলপ্রেমে এক ষোড়শী প্রেমের মহাকাব্য।

আরও পড়ুন:  খালেদা জিয়ার বাসায় ব্যারিস্টার খোকন

সুতরাং গাজীপুরের রাজনীতিতে শ্রদ্ধেয় মনির হোসেন ও মাসুম আশরাফীর সম্পৃক্ত না থাকার বিষয়টি ভবিষ্যত বিএনপি’র রাজনীতির জন্য এক দিকে যেমন অশনি সংকেত, ঠিক তেমনি গাজীপুর জেলার বিএনপি’র চলমান এই রাজনীতি ভবিষ্যতে গোটা গাজীপুরের রাজনীতিকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত করে, নিশ্চিত মৃত্যুর দিকেই ধাবিত করবে।যা হয়তো আমার কিংবা আমার মত প্রকৃত জিয়াবাদী রাজনৈতিক কর্মীদের জন্য হবে হৃদয়ে রক্তক্ষরন এবং গোটা বাংলাদেশের ভবিষ্যত বিএনপি’র রাজনীতি জন্য হবে এক অশনি বার্তা। কারন গাজীপুরের বিএনপি’র করোনা ভাইরাসের রাজনীতি সংক্রামক ভাবে সারা দেশের রাজনীতিতেও প্রবাহিত হবে।

শ্রদ্ধেয় মনির হোসেন ও জনাব মাসুম আশরাফী কিংবা তাঁদের মত অন্যান্য ত্যাগী, মেধাবী এবং প্রকৃত দলপ্রেমিকদের রাজনীতি শুন্য করার পশ্চাতে কি কারন থাকতে পারে ?শ্রদ্ধেয় মনির হোসেন ৯০’র ডাকসুতে ছিলেন কবি জসিম উদ্দীন হলের নির্বাচিত সাহিত্য সম্পাদক, তারপর ছিলেন ছাত্রদলের রাজনীতির দ্বিতীয় জন্মভূমি হিসেবে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের প্রথমে সফল সাধারন সম্পাদক এবং পরবর্তীতে অতীত সফলতার ভিত্তিতে সফল সভাপতি।

একই সাথে মনির হোসেন ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য এবং তার সাথে ছিলেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আশির দশকে সফল এবং সাহসী রাজনীতির একটি জ্বলন্ত মশাল।জনাব মাসুম আশরাফীও কালিগন্জ শ্রমিক কলেজ সংসদে প্রথমে নির্বাচিত জিএস, তারপর সাধারন ছাত্র-ছা্ত্রীদের বিপুল ভোটে পরবর্তীতে ভিপি নির্বাচিত হবার মধ্য দিয়ে প্রমান করে দিয়েছিলেন, তিনিই হতে যাচ্ছেন ভবিষ্যত গাজীপুরের বিএনপি’র রাজনীতির জন্য এক উজ্জ্বল নক্ষত্র।

আরও পড়ুন:  শারদীয় দূর্গাপুজা ও বিজয়া দশমী উপলক্ষে তারেক রহমান’র বাণী

তাহলে কথা হলো, এই নক্ষত্র গুলোর রাজনীতি ধ্বংস করার জন্য গাজীপুর বিএনপি’র রাজনীতির গগনে কোন রাহুগ্রাসের আগমন ঘটল ? এবং কেনই বা এমনটি ঘটল ?ওঁরা থাকলে বিএনপি’র ভবিষ্যত রাজনীতির সফলতা এবং মঙ্গল নিশ্চিত জেনেও, যখন ওঁদেরকেই ওঁদের তৈরী করা ঘর থেকে অন্যায় ভাবে বিতাড়িত করার অপকৌশল করা হয়, তখন কি ঐ রাজনীতি বিএনপি’র ভবিষ্যতের মঙ্গল কিংবা সফলতার বার্তা দেয় ? নাকি তার পশ্চাতে কোন ভয়াবহ ইঙ্গিতই প্রদান করে ?এই করোনা ভাইরাস যুক্ত রাজনীতির দ্রুত অবসান শুধু মাত্র গাজীপুর জেলা কিংবা কালিগন্জেই নয়, বরং গোটা বাংলাদেশের প্রিয় বিএনপি’র প্রতিটি ইউনিট রাজনীতিই হোক শতভাগ করোনামু্ক্ত, এমনটিই প্রত্যাশা করি।

মহান আল্লাহ, অনুগ্রহ করে ফায়সালা কর, কারন তুমি আজকের বিএনপি’র নেতৃত্বকেই আগামী বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেবার পথ তৈরী করে দিবে, সুতরাং বতর্মানে যদি সততা, মেধা, ত্যাগ এবং দলপ্রেম শুন্য রাজনীতির পথ তৈরী হয়, তাহলে ভবিষ্যতে তা গোটা বাংলাদেশকেই গ্রাস করে ফেলবে, তাই তুমি সত্য, সুন্দর ও কল্যানময় রাজনৈতিক নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠা করে দাও, যাতে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের ভবিষ্যত রাজনীতি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হয়, আমীন। লেখক আরিফ রহমান আরিফ

বাংলা ম্যাগাজিন ডেস্ক

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।