প্রচ্ছদ স্বাস্থ্য

স’র্দি-কা’শি এমনকি ক্যা*ন্সা*রে*র ঝুঁ’কি’ও কমায় পেঁয়াজ কলি।

16
স’র্দি-কা’শি এমনকি ক্যা*ন্সা*রে*র ঝুঁ’কি’ও কমায় পেঁয়াজ কলি।
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

পেঁয়াজের দাম বাড়ায় কলির কদর অনেকটাই বেড়েছে। এটি এমন একটি সবজি যার আছে অনেক ওষুধি গু’ণ। পেঁয়াজ কলি শুধু খেতেই সুস্বাদু নয়, বরং পুষ্টিগু’ণেও ভরপুর।

রান্না করে বা সালাদের স”ঙ্গে কাঁচাও খাওয়া হয়। অনেকের হয়তো জানা নেই, পেঁয়াজের মতো অতটা ঝাঁঝালো স্বাদের না হলেও পেঁয়াজ কলির অনেক গু’ণ রয়েছে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক-

পেঁয়াজের কলি সালফারের দারুণ উৎস। যা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। এতে যে ধরণের এলিয়েল সালসাইফ থাকে তা শরীরে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

এতে থাকা সালফার শরীরে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। যা ডায়বেটিস রোগীর জন্য দারুণ উপকারী।

রান্নায় স্বাদ বাড়াতে পেঁয়াজ কলির জুড়ি নেই। এতে প্রচুর পরিমাণে আঁশ থাকে যা হজমে সহায়তা করে।

পেঁয়াজ কলিতে থাকা ক্যারোটিন দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়। এছাড়া এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ। সালাদ তৈরির সময় গাজর ও শসার স”ঙ্গে পেঁয়াজ কলি মিশিয়ে খেলে সালাদের স্বাদ যেমন বাড়ে, তেমনি শরীরে পুষ্টির চাহিদাও মেটে।

সর্দি-কাশি সারাতেও এর বিরাট অবদান রয়েছে। এজন্য অবশ্যই নিয়মিত খেতে হবে। সূত্র: এনডিটিভি

আরও পড়ুন:  মেহেদি পাতার ব্যবহারে আ’জী’বন সুস্থ থাকুন, যেভাবে ব্যবহার করবেন

গবেষণা: তিনটি ঢেঁড়সেই নিয়ন্ত্রণে থাকবে ডায়াবেটিস বর্তমান বিশ্বে ডায়াবেটিস একটি ভয়’ঙ্কর মা’রণ রোগে পরিণত হয়েছে। অল্প বয়সেই অনেককেই ডায়াবেটিসে আ’ক্রা’ন্ত ‘হতে দেখা যায়। যা বংশগতভাবে বা নিজেদের কিছু অসতর্কতার জন্য হয়ে থাকে।

সম্প্রতি প্রকাশিত একটি সমীক্ষার রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ১৯৮০ সালে বিশ্বে ডায়াবেটিসে আ’ক্রা’ন্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ১০ কোটি ৮০ লক্ষ। বর্তমানে যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ কোটি ২০ লক্ষ।

ডায়াবেটিস একটি বিপাকীয় প্রক্রিয়া সংক্রা’ন্ত ব্যাধি। ডায়াবেটিসের ফলে দে’হ পর্যা’প্ত পরিমাণে ইনসুলিন উৎপাদনে অক্ষম হয়ে পড়ে। ফলে র’ক্তে সুগারের মাত্রা অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যায়। এই রোগের ক্ষেত্রে সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক বি’ষয়টি হল, ওষুধ, শরীরচর্চা এবং খাওয়া-দাওয়া নিয়ম মেনে করলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে, কিন্তু তা কোনো ভাবেই পুরোপুরি নিরাময় করা সম্ভব নয়।

২০১৭ সালে পাবলিক লাইব্রেরী অব সাইন্স জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় জানা গেছে, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে তিন ঢেড়স-ই যথেষ্ট।

তাই রোজ রোজ ইনসুলিন ইনজেকশন না নিয়েও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন এই ঘরোয়া উপায়ে, তাও একেবারে সামান্য খরচে। প্রতিদিন মাত্র তিনটি ঢেঁড়সেই র’ক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কীভাবে তা সম্ভব-

আরও পড়ুন:  টানা ৩০ দিন আ’দা খে’লে কী হয়, জান’লে অ’বাক হয়ে যাবে’ন!

> তিনটি ঢেঁড়স ভাল করে পানিতে ধুয়ে নিন। > এরপর সেগু’লোর সামনের দিকের সামান্য অংশ (ডগার অংশ) এবং বৃন্তের অংশ বাদ দিয়ে দিন। > এবার ঢ্যাড়সগু’লো লম্বা করে চিরে দিয়ে সারা রাত এক গ্লাস পানিতে ভিজিয়ে রাখু’ন। > সকালে উঠে এই ঢ্যাড়স ভেজানো পানি খেয়ে নিন।

র’ক্তে সুগারের মাত্রা কতটা কমল তা হাতেনাতে প্রমাণ পেতে এই পানি খাওয়ার আগে ও পানি খাওয়ার দু’ ঘণ্টা পরে ব্লাড সুগার পরীক্ষা করুন। তফাৎটা নিজেই দেখতে পাবেন। তবে এর স”ঙ্গে শরীর সুস্থ রাখতে প্রতিদিন অন্তত ৪০ মিনিট স্বাভাবিক গতিতে হাঁটাহাঁটি করুন।

প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর’্শ নিন। ডায়াবেটিসের আতঙ্ক কাটিয়ে সুস্থভাবে বাঁচুন।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 4
    Shares