প্রচ্ছদ জানা অজানা

করোনায় বন্ধ্যাত্বের ঝুঁকিতে পুরুষেরা: গবেষণা

14
করোনায় বন্ধ্যাত্বের ঝুঁকিতে পুরুষেরা: গবেষণা
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

করোনাভাইরাসের ভয়াল ছোবলে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। প্রতিদিন মৃত্যুর মিছিলে যোগ হচ্ছে হাজার হাজার তাজা প্রাণ। করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কারে বিশ্বের বাঘা বাঘা বিজ্ঞানীদের ঘাম ঝরছে শীতল ঘরে।

করোনার প্রভাবে শুধু মৃত্যু বা অর্থনৈতিক ধাক্কা নয়, হুমকিতে পড়েছেন আগামী পরুষেরা। করোনাভাইরাস মানবদেহের অনেক কিছুই বিকল করে দিচ্ছে। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, কোভিড-১৯ আক্রান্ত পুরুষদের প্রজনন ক্ষমতা কমে যাওয়া এবং বন্ধ্যাত্বের ঝুঁকিও বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই খবর বেশ আতঙ্কও সৃষ্টি করেছে মানুষের মনে।

বর্তমানে দ্রুত হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। আর এমন সময়ই এই তথ্য সামনে এনে নতুন আতঙ্কের জন্ম দিয়েছে চীনের উহানের টংজি হাসপাতালের রিপ্রোডাকটিভ মেডিসিন সেন্টারের গবেষকরা।

তারা জানান, যেসব পুরুষেরা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরে সুস্থ হয়েছেন তাদের প্রজনন ক্ষমতায় কোনো প্রভাব পড়েছে কিনা তা পরীক্ষা করা দরকার। তবে এই বিষয়ে গবেষকরা স্পষ্ট দাবী করেন, এখনো পর্যন্ত প্রজনন ক্ষমতা নষ্টের কোনো প্রমাণ না পাওয়া গেলেও এর যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন:  প্রতিদিন একজন মানুষ গড়ে ৬ হাজারের বেশি চিন্তা করে!

এই গবেষণা সম্পর্কে তারা বলছেন, যেহেতু করোনাভাইরাস ও সার্স একই গোষ্ঠীভুক্ত। তাই এই দুই ভাইরাসই এইস-২ নামে একটি এনজাইমের সঙ্গে মিশে শরীরের কোষে আক্রমণ করে কোষকে নষ্ট করে দেয়। এই এইস-২ ফুসফুস ছাড়াও মানব দেহের অন্যান্য অঙ্গগুলোতে অবস্থান করে।

বিশেষত পুরুষদের অণ্ডকোষে প্রচুর পরিমাণে থাকে এটি। এর পাশাপাশি জীবাণু কোষ, সহায়ক কোষ এবং জনন কোষ পুরুষের প্রজনন ক্ষমতার সঙ্গে সরাসরি জড়িত থাকে। ফলে করোনায় আক্রান্ত হলেই এই কোষগুলোর কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এই ভাইরাস সংক্রমণের ফলে পুরুষদের অর্কাইটিসের সমস্যা দেখা দিতে পারে। যার ফলে শরীরে শুক্রাণুর পরিমাণ কমে গিয়ে বন্ধ্যাত্ব দেখা দিতে পারে।

গবেষকরা আরো জানান, ২০০২ সালে সার্স ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হওয়া পুরুষদের অণ্ডকোষ ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। যেহেতু এই নভেল করোনাভাইরাস ও সার্স ভাইরাস একই গোষ্ঠীভুক্ত। আবার এই দুই ভাইরাস একই হোস্ট সেল রিসেপ্টর এইস-২ কে আক্রমণ করে। তাই পুরুষদের এই ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করছেন গবেষকরা।

আরও পড়ুন:  মাস্ক পরে যেসব কাজ করলেই বাড়বে বিপদ, জানালো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

এই গবেষণার উপর ভিত্তি করে উহানের টংজি হাসপাতালের রিপ্রোডাকটিভ মেডিসিনের অধ্যাপক লি ইউফেং জানান, এই ভাইরাসের সংক্রমণে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে অণ্ডকোষও। রোগী সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠলেও ডাক্তারের সাহায্য নিয়ে তার প্রজনন ক্ষমতা পরীক্ষা করা উচিত। কারণ এর ফলে বন্ধ্যাত্বের আশঙ্কাও থেকেই যায়।

অপর দিকে আমেরিকান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন কর্তৃক প্রকাশিত মাসিক ওপেন-অ্যাক্সেস মেডিকেল জার্নাল জ্যামায় গত মাসে প্রকাশিত এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, করোনা আক্রান্ত পুরুষের বীর্যে ১৫ শতাংশ কোভিড-১৯ এর উপস্থিতি রয়েছে।

তথ্যসূত্র: নিউ ইয়ার্ক পোস্ট ও বোল্ডস্কাই।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 10
    Shares