প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁ*স, যা বললেন বোরকা ও কেরোসিন দোকানদার!

157
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

নুসরাত হ*ত্যা মামলার আসামি কামরুন নাহার মনি ৪ এপ্রিল পাঁচটি রেডিমেড বোরকা কেনেন। এর মধ্যে তিনটি বোরকার অর্ডার আগে দেওয়া ছিল। এ সময় মনি দুই হাজার টাকা দিলে তাকে ২০ টাকা ফেরত দেই। রবিবার (৭ জুলাই) বিকালে ফেনীর নারী ও শিশু নি*র্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে সাক্ষ্য ও জেরাকালে বোরকা দোকানি জসিম উদ্দিন ও দোকান কর্মচারী হেলাল উদ্দিন ফরহাদ এসব কথা বলেন।

এর আগে সাক্ষ্য দেন কেরোসিন বিক্রেতা লোকমান হোসেন লিটন। তিনি বলেন, শাহাদাত হোসেন শামীম ৪ এপ্রিল রাতে ৭০ টাকা দিয়ে এক লিটার কেরোসিন তেল কেনেন। এত রাতে কেরাসিন কেনার কারণ জানতে চাইলে শামীম জানান, লাকড়িতে আ*গুন ধরানোর জন্য লাগবে।

পাবলিক প্রসিকিউটর হাফেজ আহাম্মদ এবং বাদীর আইনজীবী শাহজাহান সাজু বলেন, জসিম উদ্দিন ও দোকানের কর্মচারী হেলাল উদ্দিন ফরহাদের সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আসামি মনির পক্ষের আইনজীবী ফরিদ উদ্দিন খান নয়ন ও লিটনকে জেরা করেন।

আরও পড়ুন:  ড্রিল মেশিন দিয়ে পেটের স’ন্তান ন’ষ্ট করার হু’মকি দিয়ে স্বী’কারো’ক্তি নিয়েছে ,বললেন মনির স্বামী

আজ সোমবার (৮ জুলাই) বেলা ১১টায় মামলার ৯ নম্বর সাক্ষী নুসরাতের ছোট ভাই রাশেদুল হাসান রায়হানের সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য তারিখ ধার্য রয়েছে।

রবিবার মামলার প্রধান আ*সামি মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলাসহ ১৬ আ*সামিকে কা*রাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২৭ ও ৩০ জুন নু*সরাত হ*ত্যা মামলার বাদী ও নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমানকে জেরার মধ্য দিয়ে মা*মলার বিচারকাজ শুরু হয়। এরপর নুসরাতের সহপাঠী নিশাত সুলতানা ও নাসরিন সুলতানা ফূর্তি, চার নম্বর সাক্ষী মাদ্রাসার অফিস সহকারী নূরুল আমিন ও নৈশপ্রহরী সাক্ষ্য ও জেরা সম্পন্ন করেন।

আরও পড়ুন:  ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে সহপাঠীর ব্যাটের আঘাতে কিশোরের মৃত্যু

২৯ মে আদালতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ১৬ জনকে অভিযুক্ত করে ৮০৮ পৃষ্ঠার অভিযোগপত্র দাখিল করে। ৩০ মে মামলা ফেনীর নারী ও শিশু নি*র্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে স্থানান্তর হয়। ১০ জুন মামলাটি আমলে নিয়ে শুনানি শুরু হয়। ২০ জুন অভিযুক্ত ১৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন বিচারিক আদালত।

প্রসঙ্গত, সোনাগাজীর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে ৬ এপ্রিল গায়ে কেরোসিন ঢেলে আ*গুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। ১০ এপ্রিল চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বা*র্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগে সে মা*রা যায়। এ ঘটনায় নুসরাতের ভাই নোমান বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় মা*মলা করেন। পরে মামলাটি পিবিআইতে স্থানান্তর করা হয়।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি