পশ্চিমা দেশগুলোর আকাশপথ রাশিয়ার জন্য বন্ধ ঘোষণা

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ৩ মাস আগে

ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর রাশিয়ার বিরুদ্ধে একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে পশ্চিমারা। সেই সঙ্গে অনেক দেশ তাদের আকাশপথ রাশিয়ার জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে। এ তালিকায় ইউরোপের বেশির ভাগ দেশ যোগ দিতে যাচ্ছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) এক কর্মকর্তা। খবর বিবিসির।

পশ্চিমাদের আকাশপথ বন্ধের পাল্টা জবাবে নানা গন্তব্যে ফ্লাইট স্থগিত করেছে রুশ এয়ারলাইনসগুলো। আজ রাশিয়ার দোমোদেভোদো ও শেরেমেতিয়েভো বিমানবন্দরে প্যারিস, ভিয়েনা কালিনিনগ্রাদসহ নানা গন্তব্যে ফ্লাইট স্থগিত করতে দেখা গেছে। আগামী ১৩ মার্চ পর্যন্ত ইউরোপের বিভিন্ন গন্তব্যে যাত্রা স্থগিতের ঘোষণা এসেছে রুশ এস-৭ এয়ারলাইনসের পক্ষ থেকে।

ইউরোপের আকাশপথে বাধা পাওয়ার পর রাশিয়ার উড়োজাহাজগুলোর পশ্চিমে যাত্রার জন্য খুব কমপথই খোলা রয়েছে। ইউক্রেনে হামলার পর থেকে রাশিয়ার মালিকানায় থাকা উড়োজাহাজকে যুক্তরাজ্য, পোল্যান্ড, চেক প্রজাতন্ত্র, বুলগেরিয়া, রোমানিয়া, স্লোভেনিয়া ও বাল্টিক দেশগুলোর আকাশসীমায় প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছিল না।

রাশিয়ার উড়োজাহাজগুলোর জন্য ইতালির আকাশপথ বন্ধ করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। আকাশপথ বন্ধের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে টুইটারে এক পোস্টে জানিয়েছেন ফিনল্যান্ডের পরিবহনমন্ত্রী টিমো হারাক্কা। দেশটির সঙ্গে রাশিয়ার ১ হাজার ৩০০ কিলোমিটারের আকাশসীমান্ত রয়েছে। এ তালিকায় যোগ দিতে যাচ্ছে ডেনমার্ক, সুইডেন, আইসল্যান্ড ও অস্ট্রিয়াও।

এরই মধ্যে আজ রোববার থেকে রাশিয়ার জন্য জার্মানির আকাশপথ তিন মাস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এদিনই রাশিয়ার বিরুদ্ধে আকাশপথে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বেলজিয়াম, ফ্রান্স ও নেদারল্যান্ডসও। বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার ডি ক্রু বলেন, ‘যারা মানুষের সঙ্গে যুক্ত থাকে ইউরোপের আকাশ তাদের জন্য উন্মুক্ত; যারা নির্মম আগ্রাসন চালায় তাদের জন্য নয়।’

নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ার পর পশ্চিমের দেশগুলোতে পৌঁছাতে রুশ উড়োজাহাজগুলোকে আরও বেশি পথ ঘুরতে হবে। একই সঙ্গে বাড়বে যাত্রার সময়। একই সমস্যায় পড়েছে পশ্চিমা কয়েকটি এয়ারলাইনসও।যুক্তরাজ্যের ভার্জিন আটলান্টিক এয়ারলাইনস জানিয়েছে, দেশটি থেকে ভারত ও পাকিস্তানগামী ফ্লাইটগুলোর ১৫ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা পর্যন্ত বাড়তি সময় লাগতে পারে। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার ডারউইন থেকে লন্ডনগামী উড়োজাহাজগুলো আরও বেশি পথ ঘুরে যাবে বলে জানিয়েছে কান্তাস এয়ারলাইনস।

রাশিয়ার সবচেয়ে বড় এয়ারলাইনস অ্যারোফ্লট জানিয়েছে, কম করে হলেও আগামী ২৬ মার্চ পর্যন্ত লাটভিয়া ও রোমানিয়া এবং ২৮ মার্চ পর্যন্ত প্রাগ ও ওয়ারশগামী ফ্লাইটের চলাচল বন্ধ রাখবে তারা।এদিকে ফিনল্যান্ড উপসাগরের প্রায় ১২০ কিলোমিটার আকাশসীমা নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখতে পারে ফিনল্যান্ড। এমনটি হলে ইউরোপের যেসব দেশের আকাশপথ রাশিয়ার জন্য এখনো নিষিদ্ধ হয়নি, সেসব দেশে যেতে এ পথটিই শুধু খোলা থাকবে মস্কোর সামনে।