প্রচ্ছদ ভিন্ন স্বাদের খবর

টিকটকে লাইক পেতে সুইমিং পুলে আট মাসের সন্তানকে ছুড়ে দিলেন মা

27
টিকটকে লাইক পেতে সুইমিং পুলে আট মাসের সন্তানকে ছুড়ে দিলেন মা

পড়া যাবে: < 1 minute

আট মাসের সন্তানকে সুইমিং ফুলে ছুড়ে দিয়ে বিতর্কিত হচ্ছেন ক্রিস্টা মেয়ার নামের এক সাঁতার প্রশিক্ষক। ২৭ বছর বয়সী ওই নারী ওই ঘটনার টিকটক ভিডিও পোস্ট করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, শিশুটির নাম অলিভার। অলিভার নাকি খুব দ্রুত সাঁতার শিখছে, যেন মাছ একটি’।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি ছোট্ট সুইমিং পুলের পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন ক্রিস্টা মেয়ার, তার হাতে ধরা ছোট্ট একটি শিশু। তারপর হঠাৎই শিশুটিকে পানিতে ছুঁড়ে দিচ্ছেন। সেই সঙ্গে তিনি নিজেও পানিতে নেমে পড়ছেন। শিশুটি জলে পড়ে গিয়ে কয়েক সেকেন্ড ডুবে থাকে। আসলে সে ভেসে ওঠার চেষ্টা করছিল। কারও সাহায্য ছাড়াই এক সময় সে সত্যি সত্যিই ভেসে ওঠে। শুধু ভেসে ওঠাই নয়, সে চিৎ সাঁতার দিয়ে কিছুটা এগিয়েও যায়। তারপর তার মা তাকে কোলে তুলে নেন।

আরও পড়ুন:  তিন মাস ধরে মায়ের কঙ্কাল জড়িয়ে আছে বিড়ালছানাটি, ছবি ভাই’রাল

সুইমিং পুলের বাইরে দাঁড়িয়ে কেউ এই দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি করছিলেন। তিনি এবং আশপাশে দাঁড়ানো কয়েকজনকে ক্রিস্টার এই কাজে বেশ উৎসাহ দিতে শোনা যাচ্ছিল। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। টিকটকে ৫১ লাখের উপর লাইক পেয়েছে ভিডিওটি। এ ছাড়া টুইটারেও কয়েক লাখ লাইক পেয়েছে। তবে মাত্র আট মাসের শিশুকে এ ভাবে জলে ফেলে দিয়ে সাঁতার শেখানোর চেষ্টার সমালোচনাও করেছেন অনেকে। অবশ্য ক্রিস্টা জানিয়েছেন, এটি আর পাঁচটা সাধারণ সাঁতারের ক্লাস নয়, এখানে শিশুদের প্রতিকূল পরিস্থিতির সঙ্গে মোকাবিলা করার শিক্ষা দেওয়া হয়। নিয়ম মেনেই করা হয় এই কাজ।

আরও পড়ুন:  ম’দের অতিরিক্ত নে’শায় ম’দের বোতলটি ঢুকিয়ে দিলেন নিজের পা’য়ুপ’থে

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন banglanewsmagazine আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

  • 29
    Shares