বন্ধু নয় সেসব রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক পর্যালোচনা করবে রাশিয়া

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ৩ মাস আগে

ইউক্রেনে হামলার পর কোন কোন দেশ বন্ধু, আর কোন কোন দেশ বন্ধু নয়—এমন তালিকা করেছে রাশিয়া। রুশ সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বন্ধু নয়, এমন রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক এখন থেকে পর্যালোচনা করবে সরকারের একটি কমিশন।

রাশিয়ার বন্ধু নয়, এমন দেশের তালিকায় রয়েছে আলবেনিয়া, অ্যান্ডোরা, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো, আইসল্যান্ড, কানাডা, লিশটেনস্টাইন, মাইক্রোনেশিয়া, মনাকো, নিউজিল্যান্ড, নরওয়ে, দক্ষিণ কোরিয়া, সান মারিনো, উত্তর মেসিডোনিয়া, সিঙ্গাপুর, যুক্তরাষ্ট্র, তাইওয়ান, ইউক্রেন, মন্টেনেগ্রো, সুইজারল্যান্ড ও জাপান। এ ছাড়া ব্রিটিশশাসিত জার্সি দ্বীপপুঞ্জ, অ্যাঙ্গোলা, ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ, জিব্রালটার এলাকাও রয়েছে নিষেধাজ্ঞার আওতায়।

আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে যেসব দেশ ও অঞ্চল ‘অবন্ধুসুলভ পদক্ষেপ’ নিয়েছে, তাদের তালিকা গতকাল সোমবার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। রাশিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর এসব দেশ এবং অঞ্চলের প্রতিষ্ঠান ও নাগরিকের বিরুদ্ধে এমন সিদ্ধান্ত নিল দেশটি।

এ বিষয়ে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক একটি নির্দেশনা দিয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, এসব দেশের ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে রাশিয়ার ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে লেনদেন করতে হলে রাশিয়ার কোনো ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। রুবলে অর্থ পরিশোধ করতে হবে। এ জন্য আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত কোনো মুদ্রা দিয়ে রুবলের সমপরিমাণ অর্থ জমা করতে হবে। যেদিন পেমেন্ট হবে, সেদিন রুশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুদ্রা বিনিময়ের যে দাম থাকবে, সেই দাম অনুসারে অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

অর্থ আনার জন্য রুশ সরকার যে ব্যবস্থা চালু করছে, তা সাময়িক। যাঁরা ৭৬ হাজারের বেশি মার্কিন ডলার প্রদান করবেন, তাঁদের এই ব্যাংকিং ব্যবস্থার আওতায় আসতে হবে। এর আগে ৫ মার্চ একটি আদেশ জারি করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ওই আদেশের পরিপ্রেক্ষিতে এমন পদক্ষেপ নেওয়া হলো।