প্রচ্ছদ ভিন্ন স্বাদের খবর

এই সুন্দরী অন্ধ সেজে ২৮ বছর পার করলেন , কারণটা জানলে অবাক হবেন !!

13
এই সুন্দরী অন্ধ সেজে ২৮ বছর পার করলেন , কারণটা জানলে অবাক হবেন !!

পড়া যাবে: < 1 minute

এক বা দুই বছর নয়, অন্ধ না হয়েও অন্ধ সেজে এক নারী পার করে দিয়েছেন জীবনের আঠাশটি বছর। এতগুলো বছর তার পরিবার বা সমাজের চোখে ধুলো দিয়ে সে অন্ধের অভিনয় করলেও তার চারপাশের কেউ একবারের জন্যও সেটি বুঝতে পারেনি। কিন্তু কেন এই অভিনয়? এই প্রশ্নের উত্তরে ওই নারী যা শুনিয়েছেন তাতে তাজ্জব বনে গেছে সবাই।

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদ শহরে বাসিন্দা এই নারীর নাম কারমেন জিমেনেজ। আঠাশ বছর আগে তিনি হঠাৎ করেই একদিন সবাইকে বলতে শুরু করেন যে, তার চোখে মারাত্মক আঘাত লেগেছে এবং তিনি কিছুই দেখতে পাচ্ছেন না।

চোখে আঘাতের চিহ্ন ফুটিয়ে তুলতে কারমেন মেকাপের সাহায্য নেন। তিনি চোখে এমন ভাবে মেকআপ করেন যে সবাই সেটাকে আঘাতের চিহ্ন হিসেবেই ধরে নেয়। অন্ধ হওয়ার এই অভিনয় যখন তিনি শুরু করেন তখন তিনি ছিলেন উনত্রিশ বছরের যুবতী। এখন তার বয়স সাতান্ন বছর। মাঝখানে কেটে গেছে অনেকদিন। এই পুরোটা সময় তিনি সমানভাবে অন্ধের অভিনয় করে গেছেন।

আরও পড়ুন:  কেন সবুজ কুসুমের ডিম পাড়ছিল মুরগি, রহস্য ভেদ করলেন বিজ্ঞানীরা!

চলতি মাসেই কারমেন নিজে থেকেই সবাইকে জানিয়েছেন যে, তিনি অন্ধ নন। এতদিন অন্ধ সেজে অভিনয় করেছেন। এ কথা শোনার পর সবচেয়ে বেশি অবাক হয়েছেন তার পরিবারের লোকেরা।
কিন্তু অন্ধ না হয়েও কেন এই অভিনয়? স্থানীয় দৈনিক হে নোটিশিয়ার এই প্রশ্নের জবাবে কারমেন জানিয়েছেন, তিনি মানুষের সঙ্গে মিশতে খুব একটা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না। বিশেষ করে কারো সঙ্গে দেখা হলে তিনি ‘হ্যালো’ বলতে প্রচণ্ড বিরক্তবোধ করেন। নিজের এই অপছন্দের কাজগুলো থেকে বিরত থাকার জন্য তিনি অন্ধ সেজে ছিলেন।

তবে এতদিন পরে আসল সত্যটা জেনে কারমেনের পরিবার খুশি হলেও কারমেন মোটেও স্বস্তিতে নেই। কারণ অন্ধ না হয়েও তিনি প্রকৃত অন্ধদের জন্য রাষ্ট্র যেসব সুবিধা দেয় সেগুলো ভোগ করেছেন। ফলে স্পেনের আইন অনুযায়ী তিনি সাজা ও জরিমানার সম্মুখীন হতে পারেন।

আরও পড়ুন:  খালি গলায় গান গেয়ে ভাইরাল আদিবাসী কিশোরী, বলিউডে রেকর্ড হল গান

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন banglanewsmagazine আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

  • 5
    Shares