মন্ত্রীর ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ জানিয়ে আত্মঘাতী হলেন ঠিকাদার

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ২ মাস আগে

ভারতের কর্ণাটকের গ্রামীণ উন্নয়ন ও পঞ্চায়েত মন্ত্রী ঈশ্বরাপ্পার বিরুদ্ধে বড় অঙ্কের ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ করেছিলেন সন্তোষ পাটিল নামের এক ঠিকাদার। এ ঘটনায় খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার উদুপির একটি হোটেল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।  

আত্মঘাতী হওয়ার আগে সন্তোষ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের কাছে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ পাঠান বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাতে তিনি লেখেন, আমি আত্মহত্যা করতে চলেছি এবং এর জন্য দায়ী মন্ত্রী ঈশ্বরাপ্পা।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে সন্তোষের একটি হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ। যেখানে তাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়ার জন্য ঈশ্বরাপ্পাকে সরাসরি দায়ী করেছেন তিনি।

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বেলাগাভি অঞ্চলের বাসিন্দা ছিলেন সন্তোষ। কিছুদিন আগে একটি কাজ শেষ করার পর তার কাছে পারিশ্রমিকের প্রায় ৪০ শতাংশ ঘুষ চান মন্ত্রী ঈশ্বরাপ্পা। তবে অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে মন্ত্রী সন্তোষের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন। 

বিষয়টি সামনে আসার পর ঈশ্বরাপ্পাকে মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগের দাবি জানিয়েছেন বিরোধীরা। তবে ঈশ্বরাপ্পা জানিয়েছেন, সন্তোষকে তিনি চিনতেনই না। ফলে পদত্যাগের কোনো প্রশ্নই নেই।