ঢাকায় কালবৈশাখী ঝড় ও তুমুল বৃষ্টি

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ১ মাস আগে

আজ ভোরে সূর্য উঠার পরপরই কালো মেঘে ছেয়ে যায় রাজধানীর আকাশ। সকালে সাড়ে ৬টার পর পরই বইতে শুরু করে শীতল বাতাস। পৌনে ৭টার দিকে শুরু হয় কালবৈশাখী ঝড় ও তুমুল বৃষ্টি। কয়েকদিনের প্রচণ্ড তাপদাহে উষ্ণ ঢাকা মুহূর্তেই শীতল হয়ে যায়। আজ দিনভর বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। 

গতকাল সন্ধ্যায় ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছিল, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা ও খুলনা বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়ার সাথে প্রবল বিজলি চমকানোসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসাথে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আজ রাজধানীতে সকাল পৌনে সাতটা থেকে আটটা পর্যন্ত ৪৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এ সময় আগারগাঁও এলাকায় প্রতি ঘণ্টায় বাতাসের গতিবেগ ছিল ৫৫ কিলোমিটার। আর বিমানবন্দর এলাকায় গতিবেগ ছিল ৭০ কিলোমিটার। 

রাজশাহী, পাবনা, যশোর ও রাঙামাটি অঞ্চলের ওপর দিয়ে যে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে, বুধবার তা প্রশমিত হতে পারে বলে আশা দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

দেশের নদীবন্দরগুলোর জন্য সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, রংপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, বগুড়া, পাবনা, টাঙ্গাইল, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, যশোর, কুমিল্লা, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।