নিউমার্কেট সংঘর্ষে বিএনপির সাবেক সভাপতি মকবুল হোসেন ১ নম্বর আসামি

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ১ মাস আগে

রাজধানীর নিউমার্কেটে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনায় সরকারি কাজে বাধা, পুলিশের ওপর হামলা, ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে জখম ও ভাঙচুরের মামলায় নিউমার্কেট থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি মকবুল হোসেনকে ১ নম্বর আসামি করা হয়েছে।

জানা যায়, ওয়েলকাম ও ক্যাপিটাল নামে যে দুটি ফাস্ট ফুড দোকানের কর্মচারীর মধ্যে বিরোধের জেরে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়, সেই দোকান দু’টি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে বরাদ্দ নিয়েছিলেন মকবুল হোসেন। পরে দোকান দু‘টি তিনি ভাড়া দেন।তবে, বৃহস্পতিবার মকবুল হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, গত চার মাস আমি ওই এলাকাতেই যাইনি। ইটপাটকেল নিক্ষেপ, জখম, ভাঙচুরের প্রশ্নই আসে না। নব্বইয়ের দশকে আমি সিটি করপোরেশন থেকে দোকান দু’টি ভাড়া নিই।

মামলায় আসামি হয়েছেন নিউমার্কেটের অজ্ঞাতনামা দুই থেকে তিনশজন ব্যবসায়ী ও কর্মচারী এবং ঢাকা কলেজের ছয় থেকে সাতশ ছাত্র।পুলিশের নিউমার্কেট অঞ্চলের অতিরিক্ত উপকমিশনার শাহেনশাহ গণমাধ্যমকে বলেন, গোয়েন্দা তথ্য ও সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে এজাহারে আসামিদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

এই মামলায় নাম উল্লেখ করা অন্য আসামিরা হলেন, আমির হোসেন আলমগীর, মিজান, টিপু, হাজি জাহাঙ্গীর হোসেন পাটোয়ারী, হাসান জাহাঙ্গীর মিঠু, হারুন হাওলাদার, শাহ আলম শন্টু, শহিদুল ইসলাম শহিদ, মিজান ব্যাপারী, আসিফ, রহমত, সুমন, জসিম, বিল্লাল, হারুন, হেহা, মনির, বাচ্চু, জুলহাস, মিঠু, মিন্টু ও বাবুল।

সোমবার রাত ১২টায় নিউমার্কেট ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা সংঘর্ষে জড়ান। পরদিন মঙ্গলবার দিনভর সংঘর্ষ চলে। ওই ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুজনের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশের ওপর হামলার মামলাটি ছাড়াও ডেলিভারিম্যান নাহিদের মৃত্যুর ঘটনায় অজ্ঞাতনামা দেড় শ থেকে দুই শ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা এবং দেড় শ থেকে দুই শজনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলা হয়েছে।