মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও ইরানে চমকপ্রদ অর্থনীতি

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ২ সপ্তাহ আগে

নানা কারণে ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা জারি আছে। কিন্তু এরই মধ্য দেশটির অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়ে করা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) সর্বশেষ তালিকায় বিশ্বের সর্ববৃহৎ অর্থনীতির দেশগুলোর তালিকায় উঠে এসেছে মধ্যপ্রাচ্যর দেশটি। দেশটির আগে আছে মাত্র ১৯টি দেশ।

আইএমএফের তালিকায় ২০তম অবস্থানে উঠে এসেছে ইরান। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও অর্থনীতির আকার বিচারে পোল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, সুইজারল্যান্ড, বেলজিয়াম, অস্ট্রিয়া, আর্জেন্টিনার মতো দেশের চেয়েও ইরান এখন এগিয়ে।

আইএমএফের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী পিপিপিকে ভিত্তি ধরেই ২০২১ সালে ইরানের জিডিপি ছিল ১ লাখ ৪৩ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার। আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটির অনুমান, ২০২২ সালে ইরানের জিডিপির আকার আরও ১৩ হাজার ৭০০ কোটি ডলার বেড়ে ১ লাখ ৫৭ হাজার ৩০০ কোটি ডলারে গিয়ে দাঁড়াবে।

ইরানের রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা গত রোববার এ নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়, ২০২১ সালে ইরানের মানুষের ক্রয়ক্ষমতা সমতা বা পারচেজিং পাওয়ার প্যারিটি (পিপিপি) সমন্বয়ের মাধ্যমে মাথাপিছু মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ওপর ভিত্তি করে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল সর্বশেষ এ তালিকা করেছে।

আইএমএফের ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, পিপিপির ভিত্তিতে ২০২১ সালে বিশ্বের সর্ববৃহৎ অর্থনীতি ছিল চীন। চীনের পর দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল যুক্তরাষ্ট্র। ওই বছর চীনের জিডিপি ছিল আনুমানিক ২৭ লাখ ২০ হাজার ৬০০ কোটি ডলার। এর বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের জিডিপি ছিল ২২ লাখ ৯৯ হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলারের।

আইএমএফের দেওয়া উল্লিখিত এসব তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে, কয়েক বছর ধরে তেহরানের ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এরপরও এই সময়ে ইরানের অর্থনীতির আকার বেড়েছে। ২০২১ সালের হিসাব অনুযায়ী বিশ্বের ১৭৩টি দেশের চেয়ে সে বছর ইরানের অর্থনীতির আকার ছিল বড়।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!