বৃষ্টিতে ফ্লু ও সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে খাদ্যতালিকায় বিশেষ কিছু খাবার

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ২ সপ্তাহ আগে

বৃষ্টিতে ফ্লু ও সংক্রমণের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। এ সময় খাবার-দাবারের ব্যাপারে বিশেষ মনোযোগ দেওয়া খুবই জরুরি। পাশাপাশি যেকোন ধরনের সংক্রমণ বা ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য শক্তিশালী ইমিউন সিস্টেম থাকাও খুব প্রয়োজন। এই পরিস্থিতিতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খাদ্যতালিকায় বিশেষ কিছু খাবার অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে। 

আদা : রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে আদার জুড়ি নেই। এতে থাকা অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল উপাদান শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খুবই কার্যকরী। সবজি ছাড়াও জ্যুস, সুপ তৈরিতেও আদা ব্যবহার করতে পারেন।

হলুদ : হলুদে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট  রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এক কাপ পানিতে এক চা চামচ কালো মরিচ গুঁড়া, এক চা হলুদ গুঁড়া এবং এক চা চামচ শুকনা আদা গুঁড়া দিযে গরুম করুন। ফুটে ওঠার পর যখন সেই পানি অর্ধেক হয়ে যাবে তখন তা ঠান্ডা করে তা পান করুন।

লেমন গ্রাস : অনেকেই লেমন গ্রাসের ওষুধি গুণের কথা জানেন না। এই গাছের তেল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খুবই কার্যকরী। এটি ফাইরাল জ্বর, কাশি ও সর্দি নিরাময়ে ব্যবহার হয়। এছাড়াও পাকস্থলী, অস্ত্র এবং মূত্রনালির সংক্রশন থেকে উপশম দেয় লেমন গ্রাস।

তুলসি : তুলসীর অ্যান্টিবায়োটিক বৈশিষ্ট্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে । সেই সঙ্গে শরীরকে ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি দেয়। এক চা চামচ লবঙ্গ গুঁড়ো এবং দশ থেকে ১৫ টি তাজা তুলসি পাতা এক লিটার পানিতে দিয়ে অর্ধেক হয়ে যাওয়া পর্যন্ত ফোটান। তারপর সেটা ঠান্ডা করে এক ঘন্টা পর পর পান করুন।

ধনিয়া : ধনিয়া স্বাস্থ্যগুণে ভরপুর। এতে ভাইরাল জ্বরের মতো অনেক রোগ দূর হয়। ভাইরাল জ্বর সারাতে ধনিয়া চা খুবই কার্যকরী। বর্ষাকালে প্রতিদিন সকাল ও সন্ধ্যায় এই চা পান করা উচিত।