ইমরান খানের ‘আজাদি মার্চ’ ঠেকাতে কঠিন অবস্থান নিয়েছে পাকিস্তান সরকার

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ১ মাস আগে

রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে লাহোর। ইমরান খানের ‘আজাদি মার্চ’ ঠেকাতে কঠিন অবস্থান নিয়েছে সরকার। কিন্তু ইমরানের সমর্থকরা বিভিন্ন স্থানে পুলিশের ব্যারিকেড পার হয়ে মার্চ অব্যাহত রেখেছে। আর তাতে বাধা দেয়াতেই রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে লাহোরের বিভিন্ন সড়ক।

লাহোরের বাটি চক এলাকায় পিটিআই কর্মীদের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়ে পরে পুলিশ। মিছিল লক্ষ্য করে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করা হয়। লাহোরে পিটিআই’র নেতারা সকল কর্মীদের বাটি চকে জড়ো হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এখান থেকেই রাজধানী ইসলামাবাদের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবেন তারা। 

পুলিশ পিটিআই নেতাদের আটকাতে ব্যারিকেড এবং চেকিং অব্যাহত রেখেছে। সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়াসমিন রশিদের গাড়ি আটকে দিয়েছে পুলিশ। এক ভিডিওতে দেখা গেছে, এসময় পিটিআই সমর্থকরা পুলিশকে গালাগাল করছে এবং ইয়াসমিনের গাড়ির চাবি ছাড়িয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। বাটি চক এলাকা থেকে ১০ জনেরও বেশি কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

জিও টিভি জানিয়েছে, লাহোরে ইমরান সমর্থকরা এলে পুলিশের সাথে তাদের সংঘর্ষ হয়। বর্তমানে পিটিআই কর্মীদের সরিয়ে রাস্তার নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে পুলিশ। তবে টুইটারে পাকিস্তানের সাবেক জ্বালানী মন্ত্রী হামাদ আজহার জানিয়েছেন যে, তিনি এরইমধ্যে বাটি চকে পৌঁছেছেন।

এদিকে পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান ঘোষণা করেছেন যে, তিনি হেলিকপ্টারে করে ওয়ালি ইন্টারচেঞ্জে পৌঁছেছেন। যাত্রার আগে একটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি। এতে তিনি দেশের জনগণকে তার মার্চে যোগ দেয়ার আহ্বান জানান। আজাদি মার্চ থামাতে ইমরানকে গ্রেপ্তারের পরিকল্পনা রয়েছে বলে পাক গণমাধ্যমের রিপোর্টে জানানো হয়েছে।