পুকুরে গোসল করতে নেমে সাঁতার কাটতে কাটতে তলিয়ে গেলেন এসআই

পুকুরে গোসল করতে নেমে সাঁতার কাটতে কাটতে তলিয়ে গেলেন এসআই

সাতক্ষীরার কলারোয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রাশিদুল ইসলাম (৪০) পুকুরে ডুবে মারা গেছেন। আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে থানা এলাকার ভেতরের পুকুরে গোসল করতে নেমে সাঁতার কাটতে কাটতে তলিয়ে যান তিনি। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা তাঁর লাশ উদ্ধার করেন। তিনি দুই মাস আগে কুষ্টিয়ার খোকসা থানা থেকে সাতক্ষীরার কলারোয়া থানায় যোগ দেন।

কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, সকাল সোয়া ১০টার দিকে পুকুর থেকে উদ্ধার করে রাশিদুল ইসলামকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। তবে এখানে আনার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

কলারোয়া ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দলের প্রধান মো. ওবায়দুল্লাহ বলেন, থানার পুকুর থেকে এসআই রাশিদুলকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রাশিদুল ইসলামের বাড়ি মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার পোপালনগর গ্রামে। কলারোয়া থানার এসআই জসিমউদ্দিন বলেন, আজ সকাল সাড়ে নয়টার দিকে রাশিদুল ইসলাম পুকুরে গোসল করতে নামেন।

তিনি পুকুরে সাঁতার কাটতে কাটতে তলিয়ে যান। ঘটনা জানার পর অন্য পুলিশ সদস্যরা পুকুরে নেমে তাঁকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। তাঁকে উদ্ধার করতে না পেরে কলারোয়া ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়। ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এসে তাঁকে সকাল ১০টার দিকে উদ্ধার করেন।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দীন মৃধা পুকুরের পানিতে ডুবে রাশিদুল ইসলামের মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, রাশিদুল হৃদ্‌রোগে ভুগছিলেন।

ধারণা করা হচ্ছে, পুকুরে সাঁতার কাটার সময় তিনি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে ডুবে যান। তাঁর স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। গত ২৩ মার্চ তিনি কলারোয়া থানায় যোগ দেন। তাঁর মরদেহ মেহেরপুরে তাঁর বাড়িতে পাঠানো হবে।