আফগানিস্তানে জোড়া বিস্ফোরণে ২ জনের মৃত্যু

আফগানিস্তানে জোড়া বিস্ফোরণে ২ জনের মৃত্যু

আফগানিস্তানে শিখ ধর্মাবলম্বীদের উপাসনালয় গুরুদুয়ারার কাছে বিস্ফোরণের ফলে অন্তত ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আরও অনেকে। শনিবার সকালে দেশটির রাজধানী কাবুলে দুটি বড় ধরনের বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির ঘটনায় এই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সকালের দিকে প্রচুর গোলাগুলির শব্দ পাওয়া গেছে। 

আফগানিস্তানের টোলো নিউজ এক টুইটে বলেছে, ‘কাবুল শহরের কার্তে পারওয়ান এলাকায় বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। তবে হতাহতের বিষয়ে বিস্তারিত এখনো জানা যায়নি।’ তবে ভারতের বিজেপি নেতা মনজিন্দর সিং সিরসা একজনের মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি ভারতের সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেছেন, গুরুদুয়ারার নিরাপত্তারক্ষীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত তিনজন গুরুদুয়ারার ভেতর থেকে বের হয়ে আসতে পেরেছেন। তাঁদের মধ্যে দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আফগানিস্তানের স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, বিস্ফোরণ দুটি ঘটেছে কাবুলের কার্তে পারওয়ান এলাকায় গুরুদুয়ারার কাছে একটি ব্যস্ত সড়কে। এলাকাটি ঘনবসতিপূর্ণ। ফলে অনেক মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

এ হামলার বিষয়ে বলতে গিয়ে পাঞ্জাব রাজ্যসভার সংসদ সদস্য বিক্রম সাহনি দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেছেন, ‘কাবুল গুরুদুয়ারায় হামলাকারী বন্দুকধারীরা সম্ভবত তালেবানের প্রতিদ্বন্দ্বী দায়েশ গ্রুপের। তালেবান যোদ্ধারা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে এবং তাদের মধ্যে লড়াই চলছে।

গুরুদুয়ারার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং এখন পর্যন্ত চারজন শিখ নিখোঁজ রয়েছেন।’ এদিকে ভারতের এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি এ হামলার ব্যাপারে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস দুই ব্যক্তির মৃত্যুর কথা জানিয়েছে। তাঁদের একজন গুরুদুয়ারার মুসলিম নিরাপত্তারক্ষী আহমাদ, যাঁর পরিবার ভারতের দিল্লিতে থাকেন এবং আরেকজনের নাম সাবিন্দর সিং, যিনি গজনীতে বাস করতেন। 

গুরুদুয়ারার সভাপতি গুরনাম সিং দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেছেন, ‘বন্দুকধারীরা গুরুদুয়ারায় গুলি চালিয়েছে। আমরা এই মুহূর্তে বিল্ডিংয়ের অপর পাশে আছি। কিছু লোক মারা গেছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। আমরা ভেতরে গেলেই বিস্তারিত জানা যাবে।’