ভিন্ন স্বাদের খবর

এক সন্তানকে কুপিয়ে হত্যার পর স্ত্রী ও অন্য সন্তানকে কুপিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

রংপুরের পীরগাছা উপজেলায় এক সন্তানকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর স্ত্রী ও আরেক সন্তানকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এরপর ওই ব্যক্তি গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। গতকাল রোববার রাত আটটার দিকে উপজেলার কৈকুড়ি ইউনিয়নের মোংলাকুটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশের ধারণা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রশিদুল ও জেসমিনের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলছিল। গতকাল সন্ধ্যার দিকে তাঁদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এরপর হাতাহাতি শুরু। একপর্যায়ে রশিদুল ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রী ও দুই মেয়েকে ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন।

এতে বড় মেয়ে রাফিয়া আক্তারের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত হন স্ত্রী ও ছোট মেয়ে। পরে রশিদুল নিজেই নিজের গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে তাঁদের উদ্ধার করেন। পরে তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় নিহত হয়েছে রশিদুল ইসলাম (৪০) নামের ওই ব্যক্তির বড় মেয়ে রাফিয়া আক্তার (১১)। আর গুরুতর জখম হয়েছেন তাঁর স্ত্রী জেসমিন আক্তার ও তাঁদের চার বছর বয়সী ছোট মেয়ে রুবাইয়া আক্তার। রশিদুল, তাঁর স্ত্রী ও সন্তানকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ছুরিকাঘাতে এক সন্তানের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে রশিদুল তাঁর স্ত্রী ও দুই মেয়েকে কুপিয়ে পরে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। গতকাল রাত দেড়টার দিকে নিহত শিশুটির নানা জাহাঙ্গীর মিয়া বাদী হয়ে রশিদুলকে আসামি করে পীরগাছায় থানায় হত্যা মামলা করেছেন।

বাংলা ম্যাগাজিনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Flowers in Chaniaগুগল নিউজ-এ বাংলা ম্যাগাজিনের সর্বশেষ খবর পেতে ফলো করুন।ক্লিক করুন এখানে

Related Articles

Back to top button