স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ এবং সেই দৃশ্য মুঠোফোনের ক্যামেরায় ভিডিও করার অভিযোগে গ্রেপ্তার

লেখক: বাংলা ম্যাগাজিন
প্রকাশ: ১ সপ্তাহ আগে

বগুড়ার ধুনটে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ এবং সেই দৃশ্য মুঠোফোনের ক্যামেরায় ভিডিও করার অভিযোগে মামলার আসামি নয়ন বাবুকে (২২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নয়ন বাবু উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে। আজ সোমবার দুপুরে ধুনট থানা থেকে তাকে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

থানাহাজতে আটক নয়ন বাবু বলেন, ‘ঘটনার সাথে আমি জড়িত ছিলাম না। শত্রুতা করে আমাকে মামলায় জড়ানো হয়েছে। ‘ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানার মূল আসামি নয়ন বাবুকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে এলাঙ্গী ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে রিমন রহমান (২২) বিয়ের প্রস্তাব দেন।কিন্তু ওই ছাত্রী ও তার পরিবার বিয়েতে রাজি না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে হয়ে ওঠেন রিমন।

এক পর্যায়ে ২০২১ সালের ১৮ এপ্রিল বিকেল ৩টার দিকে ওই ছাত্রীকে কৌশলে নিজ বাড়ির ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন তিনি।এ সময় নয়নসহ তিন বন্ধু ঘরের জানালা দিয়ে ওই ধর্ষণের দৃশ্য মুঠোফোনের ক্যামেরায় ধারণ করেন। পরে ১১ মে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে নয়ন বাবুসহ চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

আদালতের নির্দেশে ২৩ মে ধুনট থানার পুলিশ মামলাটি নথিভুক্ত করে। পরে ২২ ডিসেম্বর মামলাটি তদন্তপূর্বক আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। আসামিরা পলাতক থাকায় আদালত নয়ন বাবুসহ চারজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। সেই গ্রেপ্তারি পরোয়ানায় নয়ন বাবুকে রবিবার রাতে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।