গুলিভর্তি পিস্তল নিয়ে জামিন নিতে আদালতের এজলাসে জালিয়াতি মামলার আসামি

গুলিভর্তি পিস্তল নিয়ে জামিন নিতে আদালতের এজলাসে জালিয়াতি মামলার আসামি

জালিয়াতি মামলার আসামি মনসুর আহমেদ (৪৩) তাঁর লাইসেন্স করা গুলিভর্তি পিস্তল নিয়ে জামিন নিতে আদালতের এজলাসে হাজির হন। তাঁর শার্টের নিচে থাকায় পিস্তলটি দেখা যায়নি। তবে জামিন আবেদন নাকচ হওয়ার পর পিস্তলটি সবার নজরে আসে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার দুপুরে গাজীপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে।

আসামি মনসুর আহমেদের (৪৩) বাড়ি গাজীপুর সদর উপজেলার পিরুজালি গ্রামে।গাজীপুর জজ কোর্টের ভারপ্রাপ্ত সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) মকবুল হোসেন বলেন, বিষয়টি জানাজানি হলে আদালতপাড়ায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। প্রশ্ন ওঠে আদালতের নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়ে। ক্ষোভ প্রকাশ করেন পিপিও।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পিরুজালি গ্রামের মনসুর আহমেদ একটি জালিয়াতি মামলার আসামি। জামিন চাওয়ার জন্য লাইসেন্স করা ইতালির তৈরি গুলিভর্তি একটি পিস্তল নিয়ে রোববার দুপুরে গাজীপুর আদালতের এজলাসে যান তিনি। আদালতের বিচারক শুনানি শেষে তাঁর জামিন নামঞ্জুর করেন। পরে পুলিশ মনসুরকে কারাগারে নিয়ে যাওয়ার সময় তিনি জানান, তাঁর সঙ্গে লাইসেন্স করা পিস্তল আছে। তখন আদালত পিস্তলটি পুলিশকে জব্দ করার নির্দেশ দেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, পিস্তলটি উদ্ধারের পর সেটি থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। আর আসামি মনসুরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আদালতে অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করার ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে রোববার রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে সদর থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা করেছে।