‘হাওয়া’ দেখবেন হাশিম

সাদা সাদা কালা কালা” গানটি দিয়েই প্রথম আলোচনায় আসে “হাওয়া”। গত ২৯ জুলাই মুক্তি পাওয়া সিনেমাটির প্রচারণার মূল অনুষঙ্গ ছিল এই গানটি। এর পেছনের মানুষটি হাশিম মাহমুদ। যিনি এ গানটির সুরকার-গীতিকার।

গানটি জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর নিভৃতচারী এই মানুষকে ঘিরে শোরগোল তৈরি হয়েছে।মেজবাউর রহমান সুমন পরিচালিত ‘হাওয়া’ সিনেমা নিয়ে আলোচনার শেষ নেই। ছবিটি বেশ কিছু রেকর্ড করে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। এক সপ্তাহের সাফল্যের পর ৫ আগস্ট থেকে আবারও ৪১ হলে চলবে ছবিটি।তবে যে ছবি ও গান নিয়ে এত কিছু, সেগুলোই দেখা হয়নি হাশিম মাহমুদের।

সিনেমা মুক্তি পেলেও অসুস্থতার কারণে তা তিনি দেখতে পারেননি। এবার ছবিটির প্রদর্শনীতে হাজির হতে নিজ বাড়ি নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকায় আসবেন তিনি। শনিবার (৫ আগস্ট) স্টার সিনেপ্লেক্সের একটি শাখায় ছবির কলাকুশলীদের সঙ্গে বসে দেখবেন চলচ্চিত্রটি।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন “হাওয়া” ছবির সংশ্লিষ্টরা। “সাদা সাদা কালা কালা” গানের গায়ক ও অভিনেতা আরফান মৃধা শিবলু বলেন, “হাশিম ভাই শারীরিকভাবে অসুস্থ।

নারায়ণগঞ্জে বাড়ি হওয়ায় এখন ঢাকায় খুব একটা আসেন না। তবে আমরা সবাই অনুরোধ করেছি ছবিটি দেখার জন্য। সব ঠিক থাকলে তিনি আগামীকাল আমাদের সঙ্গে সিনেমাটি দেখবেন।”অন্যদিকে হাশিম মাহমুদের পরিবার জানায়, মানসিক সমস্যাতেও ভুগছেন এই শিল্পী। এরমধ্যেই চলে তার সংগীত সাধনা। পাশাপাশি তার লেখা গান সংগ্রহ করছেন পরিবারের সদস্যরা।

নব্বইর দশকে চারুকলার প্রিয়মুখ ছিলেন হাশিম মাহমুদ। “বৈরাগী” নামের গানের দল নিয়ে গাইতেন। তখনই তৈরি হয় “সাদা সাদা কালা কালা”। এরপর শূন্য দশক থেকে এটিসহ তার অসংখ্য গান চারুকলায় নিয়মিত শোনা যেতো। পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন ও অভিনেতা শিবলু চারুকলার ছাত্র হওয়ায় এই গানের সঙ্গে তারা পরিচিত ছিলেন।

এরপর “হাওয়া” ছবিতে এটি ব্যবহার করা হয়।মেজবাউর রহমান সুমনের কাহিনি এবং সংলাপে চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য লিখেছেন মেজবাউর রহমান সুমন, সুকর্ণ সাহেদ ধীমান এবং জাহিন ফারুক আমিন।

এ সিনেমায় অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, নাজিফা তুষি, শরিফুল রাজ, সুমন আনোয়ার, নাসির উদ্দিন খান, সোহেল মণ্ডল, রিজভী রিজু, মাহমুদ হাসান এবং বাবলু বোস।চিত্রগ্রহণ করেছেন কামরুল হাসান খসরু, সম্পাদনা সজল অলক, আবহ সংগীত রাশিদ শরীফ শোয়েব এবং গানের সংগীতায়োজন করেছেন ইমন চৌধুরী।