Featuredএক্সক্লুসিভবিএনপি

*যে ভাবে বাস্তবায়িত হবে বিএনপির ঢাকা দ’খলের পরিকল্পনা*

*যে ভাবে বাস্তবায়িত হবে বিএনপির ঢাকা দ’খলের পরিকল্পনা** বিএনপি আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন রকম কর্মসূচি দিয়েছে। এই কর্মসূচির মধ্যে অন্যতম হলো ঢাকার বিভিন্ন স্থানে সভা-সমাবেশের কর্মসূচি। এই ক’র্মসূচিগু’লো য’তটা সাড়া দেবে বলে তারা আশা করেছিলো বাস্তবে তা’রচেয়ে বেশি সা’ড়া দিয়েছে বলে বিএনপি নেতারা মনে ক’রছেন। বিশেষ করে মিরপুরে এবং বনানীতে আওয়ামী লীগের বাঁ’ধা প্রদানের ফলে এই কর্মসূচীতে অনেকটাই চাঙ্গাভাব এসেছে। বিএনপির মূল লক্ষ্য হলো ঢাকা দ’খল করা।*

*২০১৩ এবং ২০১৪ সালের আ’ন্দোলনের অভিজ্ঞতা থেকে বিএনপির নেতৃবৃন্দ এটি উপলব্ধি করেছেন যে, যতক্ষণ পর্যন্ত ঢাকায় বড় ধরনের শক্ত আ’ন্দোলন গড়ে তুলতে না পারবে ততক্ষণ পর্যন্ত সরকারের ওপর কোনরকম চা’প সৃষ্টি হবে না। আর এ কারণেই বিএনপির সমস্ত পরিকল্পনা ঢাকাকে ঘি’রেই। আগে বিনএপি ঢাকার বাইরে সভা-স’মাবেশ ই’ত্যাদি কর্মসূচি পালন করেছিলো, ঢা’কার বাইরে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দে গিয়েছিলো, ঢাকার বাই’রে জ্বা’লাও-পো’ড়াও, ভা’ঙচুর, অ’গ্নিসংযো’গও ক’রেছিলো। *

*কি’ন্তু সেই সমস্ত কর্মসূচিতে খুব একটা ফল হয়নি। বরং ঢা’কায় বিএনপি কিছু করতে না পা’রার কারণেই আ’ন্দোলনে বিএনপি ব্যর্থ হ’চ্ছে বলে বিএনপি নেতৃবৃন্দ মনে করে। আর এ কারণেই এবার যে ধা’পে ধাপে আ’ন্দোলনের ক’র্মসূচি প’রিকল্পনা বিএনপি গ্রহণ ক’রেছে, সেই পরিকল্পনার মূ’লটি ঢাকাকে ঘিরেই। মূ’লত ঢাকা দ’খলই এখন বিএনপির লক্ষ্য। বিএনপি নে’তারা স্বীকার ক’রছেন যে, ঢাকার কর্তৃত্ব যদি গ্রহণ করা যায় তাহলে সারাদেশে আ’ন্দোলন চা’ঙ্গা করা খুব কঠিন ব্যা’পার হবে না। *

*ঢাকা দ’খলের ক্ষেত্রে বিএনপি এখন বাস্তব কিছু ইতিবাচক দিক রয়েছে বলে মনে করছে। এর ম’ধ্যে- প্রথমত, তারা সংগঠনকে গুছিয়েছে। ইতিমধ্যে বিএনপির উত্তর এবং দক্ষিণের ক’মিটি গঠন করা হ’য়েছে। এই ক’মিটি গঠনের পর থেকে বিএনপি ঢা’কায় কিছু কি’ছু কর্মসূচি দেয়ার চেষ্টা করছে। দ্বিতীয়ত, বেশকিছু ত’রুণ এবং জনপ্রিয় নে’তাকর্মী ঢাকায় পেয়েছে। ইশরাক হোসেন, তাবিথ আউয়াল মিন্টুর মত নেতৃবৃন্দ এখন ঢাকায় না’নাভাবে রাজনৈতিক ক’র্মকাণ্ডের স’ঙ্গে যুক্ত। এটি বিএনপির জ’ন্য ই’তিবাচক। *

*তৃতীয়ত, ঢা’কায় আওয়ামী লীগ সাংগঠনিকভাবে দুর্বল বলে বিএনপির নে’তৃবৃন্দ মনে ক’রছে। বিশেষ ক’রে ঢাকার উত্তর এবং দক্ষিণে যে স’মস্ত নেতৃত্ব আ’ছে তারা তা’দের নিজেদের কাজেই ব্যস্ত। সাংগঠনিক দি’ক থেকে আওয়ামী লীগ অন্তত দুর্বল না। বিএনপির এ’কজন নেতা বলেছেন যে, এখন পুলিশের সহায়তা ছাড়া আওয়ামী লীগ ঢা’কায় কো’থাও দাঁড়াতে পা’রবে না। এ’রকম এ’কটি বাস্তবতায় বিএনপি চা’ইছিলো যে, তাদের সভা-সমাবেশ গুলোতে উ’স্কানি আসুক, বা’ধা আসুক এবং হা’মলা হোক। *

*এরকম প’রিস্থিতি যদি তৈরি হয় তা’হলে সেই আ’ন্দোলনগুলো আরও চা’ঙ্গা হবে এবং আস্তে আস্তে পুরো ঢাকা শ’হরে বিএনপির কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা হবে। বিএনপি নে’তৃবৃন্দ বলছেন যে, আওয়ামী লীগে যারা মা’ঠের কর্মী ছিল তা’রা এখন দলে নেই। তা’ছাড়া আওয়ামী লীগের অ’ধিকাংশ নে’তারাই না’নাভাবে ব্যস্ত রয়েছে। এটি বিএনপির জ’ন্য সু’যোগ। আ’র এই সু’যোগটি কা’জে লাগানোর জন্য বিএনপি ঢা’কার বিভিন্ন স্’থানে সভা-সমাবেশের কর্মসূচি দিয়েছে বলে জানা গেছে।*

*এখন প্’রশ্ন হলো যে, বিএনপির ঢাকা দখলের পরিকল্পনা কি’ভাবে বাস্তবায়িত হবে? বিএনপি নেতৃবৃন্দ ব’লছে, ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে সভা-স’মাবেশ ক’রার মধ্য দিয়ে আ’স্তে আস্তে প’রিস্থিতি উ’ত্তপ্ত হবে। কা’রণ, সরকার এখন অ’সহিষ্ণু এবং আওয়ামী লীগের ম’ধ্যে কিছু লোক আছে যা’রা এই কর্মসূচিগু’লোকে সফল করার জন্য সহায়তা ক’রবে। তাই যদি হয় তাহলে সা’মনের দিনগুলোতে ঢাকার রা’জপথ উ’ত্তপ্ত হয়ে উ’ঠতে পা’রে এবং নানারকম স’ন্ত্রাস এবং স’হিংসতা’র ঘটনা হ’রহামেশা’ই ঘ’টতে পারে বলে বিভিন্ন মহল আ’শঙ্কা প্রকাশ করছেন।*

বাংলা ম্যাগাজিনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Flowers in Chaniaগুগল নিউজ-এ বাংলা ম্যাগাজিনের সর্বশেষ খবর পেতে ফলো করুন।ক্লিক করুন এখানে

Related Articles

Back to top button